লাইফস্টাইল

৫ উপায় চা-কফির আসক্তি কমাতে সাহায্য করবে

এক কাপ চা বা কফি দিয়ে আমাদের বেশিরভাগের প্রতিদিনের সকাল শুরু হয়। এই দুই পানীয় ছাড়া সকাল যেন অসম্পূর্ণ। শীতকালে চা-কফির আসক্তি আরো বেড়ে যায়। চা এবং কফিতে রয়েছে ক্যাফেইন। এটি সাধারণত আমাদের মেজাজ ঠিক রাখতে সাহায্য করে। কেউ কেউ এর প্রতি এতটাই আসক্ত হয়ে যায় যে দিনে ১০ থেকে ১২ কাপ চা বা কফি পান করে ফেলেন। যা স্বাস্থ্যের জন্য ঠিক নয়। অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো নয়। তবে চাইলে কমিয়ে ফেলতে পারেন চা-কফির প্রতি আসক্তি। চলুন জেনে নেওয়া যাক চা-কফি প্রতি আসক্তি কমানোর ৫টি উপায়-

বিকল্প কিছু পান করুন
চা বা কফি পান করতে মন চাইলে তার বিকল্প হিসেবে অন্য কিছু পান করতে পারেন। বিভিন্ন ধরনের ভেষজ চা রয়েছে সেগুলো পান করতে পারেন। এগুলো হজমেও সহায়তা করে। স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। যারা কফিপ্রেমি তারা ক্যাফেইন এড়াতে ডি-ক্যাফেইনড কফি পান করতে পারেন।

পর্যাপ্ত ঘুমান
পর্যাপ্ত ঘুমালে সারাদিন সতেজ অনুভব হয়। এটি স্বাস্থ্যের জন্যও ভালো। শরীর সতেজ থাকলে চায়ের প্রতি আসক্তি কম আসে। সেইসঙ্গে কাজের প্রতি স্পৃহাও বাড়ে। তাই ঘুমের দিকে খেয়াল রাখুন। অনিয়ম করবেন না।

রুটিনে পরিবর্তন আনুন
আপনার প্রতিদিনের রুটিনের যে সময়টুকু চা বা কফির জন্য বিরতি নেন সেই সময়ে অন্য কিছু করুন। যেমন হাঁটার অভ্যাস করতে পারেন। এটি স্বাস্থ্যের জন্য ভালো এবং চা-কফির অভ্যাসও কমিয়ে আনবে।

গরম পানি ও লেবু দিয়ে দিন শুরু করতে পারেন
আপনি সকালে যখনই উঠুন চা-কফির পরিবর্তে গরম পানি এবং লেবু দিয়ে দিনের শুরুটা করতে পারেন। এতে ভিটামিন-সি পাবেন। যা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। সেইসঙ্গে হজমেও সাহায্য করে। তবে খালি পেটে এই পানীয় পান করবেন না। সকালের খাবারের পর খেতে পারেন।

খাবারের তালিকায় ভারসাম্য আনুন
খাবারের তালিকায় ভারসাম্য রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। খাবারে তালিকায় পুষ্টিসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ উপাদান ঠিক রাখতে হবে। যা আপনার শরীরে শক্তি প্রদান করবে। যার ফলে শরীর সতেজ থাকবে। চা-কফির প্রতি আসক্তিও কমে আসবে।

এনডিটিভি অবলম্বনে

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button