ভিভো ওয়াই৩৩এস : থাকছে ৫০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা

ক্যামেরা ও পাওয়ারফুল পারফরম্যান্সের অপূর্ব সমন্বয়ের ভিভো ওয়াই৩৩এস। এই স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, ৮+৪ (১২) জিবি র‌্যাম ও ৫০ মেগাপিক্সেলের মেইন ক্যামেরা। গত ১ এপ্রিল পর্যন্ত চলেছে স্মার্টফোনটির প্রি-বুকিং পর্ব। প্রি-বুকিং শেষে ০২ এপ্রিল, শনিবার থেকে বাংলাদেশের সব অথোরাইজড ভিভো আউটলেটে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াই৩৩এস।

ভিভো ওয়াই৩৩এস এর মূল র‌্যাম সক্ষমতা ৮ গিগাবাইট। এক্সটেন্ডেড র‌্যাম ২.০ প্রযুক্তি দিয়ে আরো ৪ গিগাবাইট র‌্যাম বাড়ানো যাবে। ফলে ভিভো ওয়াই৩৩এস-এ পাওয়া যাবে মোট ১২ গিগাবাইট র‌্যাম । এই বাড়তি র‌্যাম দিয়ে বাড়তি ২৫টি অ্যাপ একই সময়ে ব্যাকগ্রাউন্ডে চালু রাখা যাবে। সঙ্গে থাকছে ১২৮ গিগাবাইট রম।

স্মার্টফোনটির ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারিকে সাপোর্ট দিবে ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি। ভিভো ওয়াই৩৩এস এর ডিসপ্লেটি ৬ দশমিক ৫৮ ইঞ্চির এবং স্মার্টফোনটি পরিচালিত হবে অপারেটিং সিস্টেম ফানটাচ ওএস ১১.১ দিয়ে।

ক্যামেরা পারফরম্যান্সের দিক থেকেও ওয়াই৩৩এস স্মার্টফোনটি স্মার্টফোন বাজারে অনন্য মাত্রা যোগ করবে। কেননা, স্মার্টফোনটির মেইন ক্যামেরায় চমক হিসেবে রয়েছে ৫০ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। রিয়ারে রয়েছে ২ এবং ২ মেগাপিক্সেলের আরো দু’টি ক্যামেরা। ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ক্যামেরাটি দিয়ে ৪ থেকে ১০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত কাছে থেকে ফোকাস করে ছবি তোলা যাবে। এই স্মার্টফোনটির সেলফি ক্যামেরায় রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা।

বাজেট স্মার্টফোন হলেও ভিভো ওয়াই৩৩এস স্মার্টফোনে একটি ফ্ল্যাগশিপ ফিচারও যোগ করেছে ভিভো; যার নাম ‘ভিভো এনার্জি গার্ডিয়ান বা ভিইজি’। এই ফিচারের কারণে শতভাগ চার্জ হয়ে যাবার পর নিজ থেকেই চার্জ নেয়া বন্ধ করে দিবে ওয়াই৩৩এস। ফলে, অতিরিক্ত চার্জ নিয়ে স্মার্টফোন গরম হয়ে যাওয়া বা ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে হওয়ার মতো সমস্যাগুলো আর হবে না।

ভিভো ওয়াই৩৩এস এর বাজারমূল্য ২০,৯৯০ টাকা। বাংলাদেশে স্মার্টফোনটি মিলবে মিরর ব্ল্যাক ও স্টারি গোল্ড রঙে। স্টারি গোল্ড সংস্করণটি দক্ষিণ এশিয়ার আর কোনো দেশে পাওয়া যায়নি। বিশেষ করে বাংলাদেশেই পাওয়া যাচ্ছে এই রঙের ভিভো ওয়াই৩৩এস।