চাকরির খবর

কর্মীদের মন ভালো রাখতে আবেদনময়ী নারী খুঁজছে চীনা প্রতিষ্ঠান

কর্মীদের মন ভালো রাখতে চীনা প্রতিষ্ঠানগুলো খুঁজছে সুন্দরী ও আবেদনময়ী নারী কর্মী। যাদের কাজ হবে অফিসের অন্যান্য কর্মীদের মন ভালো রাখা।

বিষয়টি শুনতে উদ্ভট মনে হলেও, চীনা প্রতিষ্ঠানগুলো এটিকে কর্মীদের বাড়তি সুযোগ-সুবিধা হিসেবে বিবেচনা করছে। কয়েকটি প্রতিষ্ঠান আবার ভালো কর্মী টানতে এসব আবেদনময়ী নারী কর্মী নিয়োগ দিচ্ছেন।

চীনা প্রতিষ্ঠানগুলো এই নারী কর্মীদের নাম দিয়েছে ‘প্রোগ্রামার মোটিভেটর’। যাদের মূল কাজই হলো প্রতিষ্ঠানের প্রোগ্রামারদের মনোবল বাড়ানো।

অভিনব এই পন্থা চীনের নতুন কোম্পানিগুলোই বেশি ব্যবহার করছে। বিশেষ করে ইঞ্জিনিয়ারদের কাজের পরিবেশ ঠিক রাখতেই এই ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মূলত চীনা সমাজে কোডার, প্রোগ্রামার এবং ইঞ্জিনিয়ারদের ‘ঝাই’ বলা হয়। মানে যাদের কোনো সামাজিক জীবন নেই। এক জন আকর্ষণীয় নারীই তাদের জীবনকে রঙিন এবং প্রাণোচ্ছ্বল বানাতে পারেন বলেও মনে করা হয়। ফলে চীনা কোম্পানিগুলো তাদের মনোবল বাড়াতে নারী কর্মী নিয়োগ দিচ্ছে।

বেইজিংয়ের এক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পাস করে এক প্রযুক্তি সংস্থার প্রোগ্রামার মোটিভেটর হিসেবে কাজ করেন ২৫ বছর বয়সি শেন ইয়ু। তার দাবি, সংস্থার কোডার এবং প্রোগ্রামারদের সঙ্গে কথা বলার মতো কেউ নেই। তাই তাদের সঙ্গে সময়ে সময়ে মনের কথা বলে কাজের চাপ থেকে মুক্তি দেওয়া হয়।

তবে শুধুমাত্র কথা বলা নয়। মনোবল বাড়াতে, প্রয়োজনে কর্মীদের হাত-পা ম্যাসাজ করতেও হতে পারে শেন-র মতো প্রোগ্রামার মোটিভেটরদের।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে চীনের অন্যতম বড় ই-কমার্স সংস্থা ‘আলিবাবা’-ও এই কাজের জন্য মহিলা চেয়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছিল। তখন অবশ্য এর জন্য চরম সমালেচনারও শিকার হতে হয় এই ই-কমার্স সংস্থাকে। তবে এখন চীনে বিষয়টি বেশ স্বাভাবিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button