বিতর্কের মধ্যেই বাধ্যতামূলক ছুটিতে আইসিসির প্রধান নির্বাহী

মেজাজ হারানোর মাশুল গুনলেন আইসিসির প্রধান নির্বাহী মানু সাহনি। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ কর্মচারীদের সঙ্গে বাজে আচরণের। অভিযোগ প্রমানিত হতেই ৫৬ বছর বয়সী এই কর্তা ব্যক্তিটিকে ছুটিতে পাঠাল বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা। যদিও এনিয়ে এখনো অফিসিয়ালি কিছুই জানায়নি আইসিসি।

২০১৯ সালে ডেভ রিচার্ডসনের জায়গায় প্রধান নির্বাহী হয়েছিলেন সাহনি। এরপর থেকেই তার বাজে আচরণ নিয়ে ওঠে প্রশ্ন। আইসিসির দুবাই অফিসের ৯০ শতাংশেরও বেশি কর্মচারী তার বিরুদ্ধে খারাপ আচরণের অভিযোগ তুলেন। একইসঙ্গে প্রাইসওয়াটারকুপার্স (পিডব্লিউসি) এর তদন্তে কর্মচারীদের সঙ্গে বাজে আচরণের অভিযোগ প্রমানিত হয়। খারাপ আচরণের সঙ্গে সবার ওপর প্রভাব বিস্তারের অভিযোগও আছে তার বিরুদ্ধে।

অবশ্য এর আগে তার মেজাজ প্রশ্নবিদ্ধ আগে থেকেই। সিঙ্গাপুর স্পোর্টস হাবে কাজ করার সময়ও সাহনির বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠেছিল। এবার শাস্তি পেতেই হলো তার। এর মধ্যে ভারতীয় বংশোদ্ভুত সাহানিকে গত মঙ্গলবার বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠিয়েছে আইসিসি।

যদিও আইসিসি প্রধান নির্বাহীর মেয়াদ শেষ হতে আরও এক বছর বাকি। সিঙ্গাপুর স্পোর্টস হাব ছাড়াও ইএসপিএন স্টার স্পোর্টসের প্রধান হিসেবে ১৭ বছর কাজ করা সাহনি এবার কঠিন সময়ে দাঁড়িয়ে। আইসিসির সাবেক প্রধান শশাঙ্ক মনোহরের ঘনিষ্ট বলে পরিচিত সাহনি কোনরকম আর্থিক দুর্নীতিতে জড়িত কীনা তাও খতিয়ে দেখছে আইসিসি। ৃ