ইংল্যান্ডকে উড়িয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত

গোলাপি বলের টেস্টে ভারতের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি ইংল্যান্ড। সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্টেও একই গল্প। স্পিনের বিরুদ্ধে অসহায় আত্মসমর্পণ, উড়ে গেল সফরকারীরা। তিনদিনেই টেস্ট জিতল ভারত।

শনিবার টেস্টের তৃতীয় দিন বিকেলে রবিচন্দ্রন অশ্বিনদের সামনে দ্বিতীয় ইনিংসে অল আউট মাত্র ১৩৫ রানে। দুই স্পিনার অশ্বিন ও অক্ষর প্যাটেল দুজনই নিয়েছেন ৫টি করে উইকেট।

এর আগে ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংসে তুলে ২০৫ রান। ভারত ১ম ইনিংস করেছিল ৩৬৫। ১৬০ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে সফরকারীরা। কিন্তু ফের ব্যর্থ ব্যাটসম্যানরা। এবার অলআউট মাত্র ১৩৫ রানে। সব মিলিয়ে ইনিংস ও ২৫ রানের জয়ে আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ওঠা নিশ্চিত করল বিরাট কোহলির দল।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতল ভারত। তার পথ ধরেই বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পৌঁছে গেল স্বাগতিকরা। জুনে লর্ডসে শিরোপার লড়াইয়ে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবেন বিরাট কোহালিরা।

টেস্টের তৃতীয় দিনে শনিবার ফলোঅন এড়ানোর লড়াইয়ে নামে ভারত। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অক্ষর প্যাটেল ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনের ঘূর্ণি বলের সামনে কিছুই করা হয়নি। যা একটু লড়লেন অধিনায়ক জো রুট। তিনি করেন ৩০ রান।

অশ্বিন ও অক্ষর সমান ৫টি করে উইকেট পেলেও ম্যাচের সেরা ঋষভ পান্ত। সিরিজ সেরার ট্রফি পেলেন অশ্বিন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ২০৫/১০
ভারত ১ম ইনিংস: ১১৪.৪ ওভারে ৩৬৫/১০ (সুন্দর ৯৬*, অক্ষর ৪৩, ইশান্ত ০, সিরাজ ০; অ্যান্ডারসন ৩/৪৪, স্টোকস ৪/৮৯, লিচ ২/৮৯)।
ইংল্যান্ড ২য় ইনিংস: ৫৪.৫ ওভারে ১৩৫/১০ (ক্রলি ৫, সিবলি ৩, বেয়ারস্টো ০, রুট ৩০, স্টোকস ২, পোপ ১৫, লরেন্স ৫০, ফোকস ১৩, বেস ২, লিচ ২, অ্যান্ডাসন ১; অক্ষর ৫/৪৮, অশ্বিন ৫/৪৭)।
ফল: ভারত ইনিংস ও ২৫ রানে জয়ী।
সিরিজ: ৪ টেস্টের সিরিজে ৩-১ ব্যবধানে জয়ী ভারত।
ম্যাচসেরা: ঋষভ পান্ত।
সিরিজসেরা: রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *