কঠিন পরিস্থিতির পরও ইতিবাচক বাশার

করোনার মধ্যে ক্রিকেট শুরু হলেও সর্বোচ্চ সতর্কতা মানতে হচ্ছে দলগুলোকে। জৈব সুরক্ষা বলয়ে থেকে হাঁপিয়ে উঠছেন ক্রিকেটাররা। অন্যান্য দেশে কোয়ারেন্টাইন শিথিলতা থাকলেও সুরক্ষা বলয় থেকে বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। এদিক থেকে নিউজিল্যান্ডের নিয়ম কিছুটা ভিন্ন। সেখানে কোয়ারেন্টাইনের কড়া নিয়ম মানতে হয় বাইরে থেকে যাওয়া দলগুলোকে। তবে ১৪ দিন পর মেলে মুক্তি। এজন্য নিউজিল্যান্ডের কড়া নিয়মের মধ্যেও ইতিবাচক দিক দেখছেন হাবিবুল বাশার সুমন।

কোয়ারেন্টাইন ইস্যুতে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে দেন দরবারে সফলতা আসেনি। তবে কড়া নিয়ম থাকলেও নিউজিল্যান্ডে গেছে টাইগাররা। অন্যান্য দেশে যেখানে তিনদিন, পাঁচদিন, সাতদিন পর মাঠে ফিরতে পারছে দলগুলো, সেখানে নিউজিল্যান্ডে গেলে পাক্কা ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন। তবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন পর্ব শেষ করলে সুরক্ষা বলয়ে থাকতে হবে না সফরকারীদের। ১৪ দিন পর স্বাভাবিক জীবনযাপন।

বাংলাদেশ দল নিউজিল্যান্ডে গেছে ২৩ ফেব্রুয়ারি। দীর্ঘ ১৫ ঘণ্টা যাত্রার পর ২৪ ফেব্রুয়ারি সেখানে পৌঁছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। এরপর ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন। যার ১১ দিনই পার করে ফেলেছে বাংলাদেশ দল। বাকি মাত্র ৩ দিন। এই ৩ দিন পর মুক্ত সফরকারীরা। স্বাধীনভাবে ঘুরে বেড়ানোর অনুমতি মিলবে।

শনিবার নিউজিল্যান্ড থেকে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় দলের সঙ্গে যাওয়া নির্বাচক হাবিবুল বাশারের কণ্ঠে উচ্ছ্বাস, ‘প্রথম কয়েকদিন কষ্টদায়ক ছিল। প্রথম দুই-তিনদিন আমাদের বুঝতে সময় লেগেছে। এটা সম্পূর্ণ ভিন্ন রকম এক অভিজ্ঞতা সবার জন্যই, বেশ কঠিন ছিল। চার-পাঁচ দিন পরে তো আমরা বাইরে বের হতে পারছিলাম, সবার সঙ্গে একটু হলেও দেখা হচ্ছিল। এখন অনুশীলনের সুযোগ পাচ্ছি।’

বাশার আরও যোগ করেন, ‘যখনই যে সিরিজ খেলি এক মাসের বেশি সময় আমাদের বাবলের (জৈব সুরক্ষা) মধ্যে থাকতে হচ্ছে। এই সময়টা কিন্তু আমরা কোথাও যেতেও পারি না, ফ্যামিলির কেউ আসতে পারে না। সেটা বরং কঠিন। এখানে (নিউজিল্যান্ডে) অনেক বড় একটা সুবিধা এই ১৪ দিন পরই কিন্তু আমরা মুক্ত। স্বাধীনভাবে ঘুরে বেড়াতে পারব, যে কোনো জায়গায় যেতে পারব, এবং খেলার বাইরে সময়টা খুব ভালোভাবে উপভোগ করতে পারব। এটা কিন্তু একদিকে ভালো যে আপনি ১৪ দিন কষ্ট করছেন, তারপর কিন্তু আপনাকে আর বাবলের মধ্যে থাকতে হচ্ছে না। ছেলেরা এটা সবাই অনুধাবন করছে। সবাই এটাকে খুব ইতিবাচকভাবে নিয়েছে।’

২০ মার্চ ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে বাংলাদেশ দলের নিউজিল্যান্ড সফর। সিরিজের পরের দুই ওয়ানডে ২৩ ও ২৬ মার্চ। এরপর আগামী ২৮ মার্চ থেকে শুরু হবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *