কটু কথা এড়িয়ে চলার কৌশল

কর্মক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের মানুষের সঙ্গে দেখা হয়। চলার পথে সেসব মানুষের কাছে শুনতে হয় নানা কটু কথা। এসব কথা হজমে অনেকের সমস্যা হয়। অনেকে হারান মানসিক স্বস্তি। সব কটু কথায় কান দিলে আপনার সময় নষ্ট হবে আর সেই সঙ্গে মন তো বিক্ষিপ্ত হবেই। তাই মানসিক প্রশান্তি ধরে রাখতে সব ধরনের কথায় কান দেয়া যাবে না। ক্ষেত্রবিশেষে এড়িয়ে চলতে হবে। কটু কথা শুনে হজম করার জন্য কিছু কৌশল জানা জরুরি। এসব কৌশল অবলম্বন করলে মানসিকভাবে প্রশান্তি লাভ করা সম্ভব।

চুপ থাকুন, শান্ত থাকুন
দোকানে গ্রাহক এসে পণ্য সম্পর্কে অভিযোগ করছেন। দুই-একটি কটু কথাও শুনিয়ে দিচ্ছেন। এসব কটু কথা কোনো মানুষের ভালো লাগার কথা নয়। কিন্তু তার বিপরীতে আরও কথা শুনিয়ে দেয়া সমীচীন নয়। এমতাবস্থায় দোকানদার যদি ধৈর্যের পরিচয় দেন তাহলে সেটি সুফল নিয়ে আসে। দোকানদারের নীরবতা অবলম্বন গ্রাহককে সহিংস হতে বাধ্য করবে না। অথবা সড়কে গাড়ি চালানোর সময় দুজন চালকের মধ্যে বিবাদ হলে শান্ত পরিস্থিতিতে সমস্যার যথোপযুক্ত সমাধান করা উচিত।

অনুভূতির মূল্যায়ন করুন
কখনো কখনো দোকানে বা কোম্পানিতে গ্রাহক মনে করেন তার প্রতি অবহেলা করা হচ্ছে বা তাকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। এ অবস্থায় সেই গ্রাহকের অনুভূতিকে মূল্যায়ন করুন। গ্রাহক যাতে তার মনোভাব পরিপূর্ণভাবে প্রকাশ করতে পারে সেই কারণে নীরবে তাকে মূল্যায়ন করুন। গ্রাহক যদি কোনো ভুল কিছু বলে তারপরেও তার সামনে পাল্টা যুক্তি দেখানো উচিত নয়। এটি ব্যবসা বা যেকোনো কাজের জন্য ক্ষতিকর।

সতর্ক করে দিন
গ্রাহক যদি বাড়াবাড়ি করেন তবে তাকে সতর্ক করে দিন যে কোম্পানির পক্ষ থেকে তাকে কোনো সহায়তা করা হবে না। এমতাবস্থায় পরিস্থিতি বেগতিক হলে তার সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করুন কিংবা অন্য গ্রাহকদের প্রতি মনোযোগ দেন। ফোনে যোগাযোগ হলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিন।

সহকর্মীদের সহায়তা নিন
গ্রাহক যদি কোনো ক্ষতি করতে চায় তবে সহকর্মীদের সহায়তা নিন। তাদের কাছে পরিস্থিতি সম্পর্কে বলুন। সম্ভব হলে কোনো উর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে বিষয়টি জানান। এমন পরিস্থিতিতে তারা অবশ্যই সহায়তা করবেন। কোম্পানির নারী কর্মকর্তাকে উত্যক্ত করলে গ্রাহককে পুলিশে সোপর্দ করুন। এছাড়া রাষ্ট্রবিরোধী মন্তব্য করলে তার বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিন।

ভালো ব্যবহার
গ্রাহক যদি আপনার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে তবে তার বিপরীতে আপনি ভালো ব্যবহার করুন। মনে রাখবেন, ব্যবহারে বংশের পরিচয়। নিজের খারাপ ব্যবহার দিয়ে কখনোই অন্যের খারাপ ব্যবহারকে মোকাবেলা করা যায় না। পাল্টা গালি দেয়ার মধ্য দিয়ে সমস্যা আরও জটিল হয়ে ওঠে। তাই কটু কথা শুনলে ভালো ব্যবহার করা উচিত।

উইকিহাউ ডট কম অবলম্বনে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *