পরিবারকে খুশি রাখার উপায়

দিনশেষে যাদের কাছে ফিরলে দূর হয় সমস্ত ক্লান্তি, জীবনকে মনে হয় রঙিন- তাদের নিয়েই আমাদের পরিবার। পরিবারের সদস্যদের মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধন বজায় থাকে পরস্পর সম্মান ও ভালোবাসার মাধ্যমে। আপনজনকে খুশি রাখলে পরিবারে শান্তি বজায় থাকে। আপনজনদের খুশি রাখার কিছু উপায় রয়েছে। উপায়গুলো হলো-

অন্তত কোনো একটি সময়ে কথা বলুন
পাহাড়সম কাজের ব্যস্ততার মধ্যেও পরিবারের সঙ্গে কিছু সময় ব্যয় করুন। দিনের নির্দিষ্ট অংশে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলুন। বিশেষ করে পরিবারের বয়স্ক ব্যক্তিদের আলাদাভাবে সময় দিলে তারা খুশি হন। পরিবারের সদস্যদের যেকোনো অর্জনের জন্য শুভকামনা জানান। এছাড়া আপনার জীবনে নানা সমস্যার বিষয়ে তাদের সঙ্গে খোলাখুলি আলোচনা করুন। সহায়তার মনোভাব রাখুন। অন্যের দৃষ্টিভঙ্গীকে সম্মান করুন। তাদেরকে সবসময় আগলে রাখুন।

আনন্দের মুহূর্তগুলো পরিবারকে দিন
অবসরে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সময় কাটান। কোথাও ঘুরতে যান কিংবা সিনেমা দেখতে যান। শখের কাজ করার সময় তাদের সঙ্গে রাখুন। বিশেষ করে বাসার বিভিন্ন কাজে তাদের সহায়তা করুন। সহায়তার মনোভাব থাকলে তারা আপনাকে অনেক পছন্দ করবেন। গুছিয়ে রাখুন নিজের জিনিসপত্র। ভাগাভাগি করুন সুখ-দুঃখ।

সব কথা শুনুন
বয়স্করা যেসব কথা বলবেন সেসব মনোযোগ দিয়ে শুনুন। কথা বলার মধ্যে ফোঁড়ন কাটবেন না। এতে পরিবারের সদস্যরা বিরক্ত হয়। সাধ্যমতো তাদের সহযোগিতা করুন। মা-বাবা, চাচা-চাচি, দাদা-দাদিকে সাহায্য করলে তারা আপনার জন্য স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা করবেন। বড়দের সম্মান করুন ও ছোটদের ভালোবাসুন। কোনোক্রমেই পরিবারের ছোট সদস্যদের প্রতি অবহেলা দেখানো যাবে না। ছোটরা যদি কোনো কিছু বলতে চায় তবে তাদের কথাও গুরুত্ব দিয়ে শুনুন।

সহযোগিতার মনোভাব প্রকাশ করুন
পরিবারের সদস্যরা কোনো বিপদে পড়লে তারা সহযোগিতার অনুভব করছেন কি না সেই বিষয়ে জানতে চান। এতে আপনার সহযোগিতার মনোভাব প্রকাশ পাবে। পরস্পরের প্রতি সহযোগিতার মনোভাব থাকলে পরিবারে সুখ-শান্তি বজায় থাকে। সহায়তা করলে সবাই খুশি হন। ছোট-বড় নির্বিশেষে সবাইকে সহযোগিতা করার মনোভাব রাখুন।

মাঝেমধ্যে চমকে দিন
পরিবারের সদস্যদের মাঝেমধ্যে চমকে দিন। উপহার দেয়ার মাধ্যমে তাদের জানিয়ে দিন যে আপনি তাদের ভালোবাসেন। উপহার হতে পারে আপনার সাধ্যমতো। আবার একসঙ্গে কোথাও ঘুরতে যাওয়া বা রেস্টুরেন্টে খেতে যাওয়াও চমকপ্রদ উপহার হতে পারে। না চাইতে আকাঙ্ক্ষিত কোনো কিছু করার মাধ্যমেও চমক দেয়া যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *