জাতীয় দলে না খেলার পথও খোলা রাখছে বিসিবি

সমস্যাটা মূলত তৈরি হয়েছে সাকিব আল হাসানকে নিয়ে। বাংলাদেশ দলের আসন্ন শ্রীলঙ্কা সফর থেকে ছুটি নিয়েছেন এই অলরাউন্ডার। জাতীয় দলের খেলা রেখে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) খেলতে যাবেন সাকিব। এজন্য ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তি নিয়ে কঠিন পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে বিসিবি।

সোমবার মিরপুরে বিসিবির বোর্ড সভা শেষে সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আমরা তাদের সঙ্গে একটি চুক্তিতে যাবো এখন। এই বছর আমরা কোনো চুক্তি করিনি। আমাদের যে চুক্তি শেষ হয়েছে আমরা এখনও তা নবায়ন করিনি। এই চুক্তিতে এখন নতুন কিছু জিনিস যোগ হবে। সেখানে লেখা থাকবে কে কোন ফরম্যাট খেলতে চায়, তাদেরকে বলতে হবে এবং সেটাও জানতে হবে তাদের অন্য কোনো জায়গায় অন্য কিছু থাকে তাহলে জাতীয় দলে খেলবে নাকি ওইখানে।’ মানে জাতীয় দলে না খেলার পথও খোলা রাখছে বিসিবি।

চলতি বছর এখনো ক্রিকেটারদের কেন্দ্রীয় চুক্তি প্রকাশ করেনি বিসিবি। গত বছর নিষেধাজ্ঞার কারণে এই চুক্তিতে ছিলেন না সাকিব। এ বছর কি তিন ফরম্যাটেই থাকবেন তিনি? বোর্ড থেকে এতোদিন জানানো হয়েছে, যেদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন, সেদিন থেকেই বোর্ডের চুক্তির আওতায় এসেছেন সাকিব। তবে জটলা তৈরি হয়েছে সাকিব শ্রীলঙ্কা সফরে না যাওয়ায়।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে এপ্রিলের মাঝামাঝি দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ দল। সে সময় মাঠে গড়াবে আইপিএল। এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট খেলার জন্য শ্রীলঙ্কা বিপক্ষে টেস্ট স্কোয়াডে তার নাম বিবেচনা না করতে বিসিবির কাছে আবেদন করেন সাকিব। সেই আবেদন মঞ্জুর করলেও বিব্রত বিসিবি। এজন্য আসন্ন কেন্দ্রীয় চুক্তি নিয়ে শক্ত ভাবনা বোর্ডের।

পাপন আরও বলেন, ‘এই চুক্তিতে যারা স্বাক্ষর করবে তাদের তো আমরা যেতে দেব না। এখন ব্যাপারটা খোলামেলা। আগে ছিল সেটা ব্যক্তিগত, এখন এটা আমরা কাগজে কলমে লিখিত ভাবে নিয়ে নিচ্ছি। এখানে কারো বলার কিছু থাকবে না। জোর করে নিচ্ছি এটা বলার কিছু থাকবে না।’