প্রস্তাবিত বিলে পরিবর্তন আনা হবে না: অস্ট্রেলিয়ার অর্থমন্ত্রী

ফেসবুকের মতো টেক জায়ান্টগুলোর বিরোধিতা সত্ত্বেও অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তাবিত বিলে কোনো পরিবর্তন আনা হবে না। সোমবার দেশটির আইনসভার জ্যেষ্ঠ সদস্য রয়টার্সকে এ কথা বলেন। প্রস্তাবিত বিল অনুযায়ী অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম থেকে সংবাদ কনটেন্ট শেয়ারের জন্য সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগল ও সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুককে টাকা দিতে হবে।

বিলটি প্রস্তাবের পর থেকে ফেসবুক এর ব্যাপক সমালোচনা করে আসছে এবং গত সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়ায় সংবাদের সাইটগুলো ব্লক করে দেয়। বিষয়টি নিয়ে দেশটির আইনসভার সদস্যদের সঙ্গে ফেসবুকের একাধিকবার আলোচনা হয়েছে। কিন্তু সোমবার সিনেটের উচ্চকক্ষের এক জ্যেষ্ঠ সদস্য এ বিষয়ে আইনসভার সদস্যদের অনড় অবস্থান জানিয়ে বলেন, বিলটিতে কোনো সংশোধনী আনা হবে না।

বিলটির ব্যাপারে গুগল ও ফেসবুক ব্যাপক সমালোচনা শুরু করলেও গত সপ্তাহে অস্ট্রেলিয়ার একাধিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিষ্ঠাতা রুপার্ট মার্ডকের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করে গুগল। অস্ট্রেলিয়ার অর্থমন্ত্রী ও আইনসভার জ্যেষ্ঠ সদস্য সাইমন বার্মিংহাম বলেন, ‘প্রস্তাবিত বিল যেমন আছে তেমনই থাকবে…। প্রস্তাবিত বিলের ব্যাপারে ফেসবুকের সমালোচনা অযৌক্তিক ও সমালোচনা করে বিলটিতে কোনো পরিবর্তন আনতে পারবে না তারা। ইতোমধ্যেই গুগল প্রস্তাবিত বিলটি মেনে নিয়েছে।’ তবে অস্ট্রেলিয়ার অর্থমন্ত্রীর মন্তব্যের জবাব দিতে রাজি হয়নি ফেসবুক।

ফেসবুক, গুগল ও টুইটারসহ অন্যান্য অনলাইন প্ল্যাটফর্ম নিয়ে গঠিত লবি গ্রুপ ডিজি বলছে, অনলাইনে অসত্য তথ্য কমানোর জন্য গ্রুপটির সদস্য কোম্পানিগুলো নিজেদের কোড ব্যবহার করতে রাজি হয়েছে। ওই ভলান্টারি কোড ব্যবহার করে তারা অজ্ঞাত ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট বাতিল করা শুরু করবে।