দুই কোটির জন্য পরিবার ছেড়ে থাকবেন না স্মিথ

সদ্যসমাপ্ত আইপিএল নিলাম অনেককেই অবাক করেছে বেশ। যেখানে আনকোরা শাহরুখ খান, কাইল জেমিসনদের দাম উঠেছে আকাশে, স্টিভেন স্মিথ, সাকিব আল হাসানদের দলগুলো পেয়েছে তুলনামূলক ‘পানির দামেই’! মাত্র ২ কোটি বিশ লাখ রুপিতে স্মিথকে পেয়ে গেছে দিল্লি। তাতে অবাক হয়েছেন তার সাবেক সতীর্থ মাইকেল ক্লার্কও। সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক মনে করেন, এত কম অর্থের জন্য পরিবার ছেড়ে দীর্ঘ জৈব-সুরক্ষা বলয়ে থাকবেন না স্মিথ।

গেল বছর আইপিএলে রাজস্থান রয়্যালসের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পালন করেছিলেন স্মিথ। দল অবশ্য পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থেকে শেষ করেছিল গেল আসর। চলতি নিলামের আগে রাজস্থান তাকে ছেড়ে দেয়, আইপিএলের ১৪তম আসরে এবার তার খেলার কথা দিল্লির হয়ে।

তবে দিল্লি যে দামে কিনেছে স্মিথকে সেটাই অবাক করেছে ক্লার্ককে। তার মনে হচ্ছে, এত কম পারিশ্রমিকে আইপিএলে খেলবেনই না অজি এই ব্যাটসম্যান। তিনি বলেন, ‘স্টিভেন স্মিথ বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান না হলেও খুব বেশি দূরেও নেই। কোহলি বিশ্বসেরা, কিন্তু স্মিথি শীর্ষ তিনের একজন। আমি জানি তার টি-টোয়েন্টি পারফর্ম্যান্স যেমন হওয়ার কথা ছিল তেমন নয়, গেল বছরের আইপিএলটাও ভালো কাটেনি। কিন্তু তবুও তার যে দাম উঠেছে, ৪ লাখ অস্ট্রেলিয়ান ডলারের কিছু কম, তাতে বেশ অবাকই হয়েছি। যদিও এটা ভালো অঙ্ক!’

কম অর্থের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে টানা ১১ সপ্তাহ পরিবার থেকে দূরে, জৈব-সুরক্ষা বলয়ে থাকার ঝক্কি। সব মিলিয়ে স্মিথ যে আসছে আসরে খেলবেন তা নিয়ে সন্দিহান ক্লার্ক। বললেন, ‘তার জন্য আট সপ্তাহের টুর্নামেন্ট, কোয়ারেন্টাইন মিলিয়ে যা ১১ সপ্তাহে দাঁড়াচ্ছে। আমার মনে হচ্ছে না মাত্র ৩ লাখ ৮০ হাজার ডলারের জন্য পরিবার, প্রেমিকা ছেড়ে ১১ সপ্তাহ ভারতে থাকবে স্মিথ।’

ক্লার্কের মত, আইপিএল শুরুর আগেই চোট কিংবা অন্য অযুহাতে নিজেকে সরিয়ে নেবেন সাবেক অজি অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে সে সেখানে খেলতে যেতে অপারগতা প্রকাশ করে কিনা, তা দেখতে মুখিয়ে আছি। কিংবা অন্য পথও বেছে নিতে পারে সে, যদি বলে, আমি সেখানে যেতে চাই না, বরং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলে আগামী আইপিএলে আরও বেশি দামে খেলতে চাই। আমি এটাই করতে চাই, অর্থের চিন্তা করি না আমি, বরং মানুষজনকে ভুল প্রমাণ করতে চাই।’

টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এখন পর্যন্ত স্মিথ খেলেছেন ২০৯ ম্যাচ। যেখানে তিনি ৪৪৩৮ রান করেছেন ৩০.৬০ গড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *