মেসির সঙ্গে এখনো কথাই বলেনি ম্যানসিটি

লিওনেল মেসিকে পেতে বড় অঙ্কের চুক্তির প্রস্তাব দিয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি, এমন এক গুঞ্জনে সম্প্রতি মুখর হয়েছিল ইউরোপীয় সংবাদ মাধ্যম। তবে সিটির নির্ভরযোগ্য সূত্র ধরে ইএসপিএন জানাচ্ছে, মেসিকে পেতে তেমন কোনো চুক্তির প্রস্তাবই দেয়নি সিটি। অপেক্ষা করতে চায় মেসির সিদ্ধান্ত নেওয়া পর্যন্ত।

গত শুক্রবার ইংলিশ সংবাদ মাধ্যম ডেইলি সান জানিয়েছিল মেসির জন্য পাঁচ হাজার কোটিরও বেশি টাকার চুক্তি প্রস্তাব করেছিল কোচ পেপ গার্দিওলার দল। তবে সিটি কর্তৃপক্ষ ব্যাপারটায় বেশ চটেছে, জানাচ্ছে ইএসপিএন।

চলতি মৌসুম শেষেই বার্সার সঙ্গে চুক্তি শেষ হয়ে যাবে মেসির। ‘ফ্রি এজেন্ট’ হয়ে যাওয়া মেসিকে পেতে আগ্রহীদের তালিকায় এগিয়ে আছে ম্যানচেস্টার সিটি। ফরাসি ক্লাব পিএসজিও আছে সিটির প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে। তবে দুই দলের কোনোটিই এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে মেসির সঙ্গে কথা বলেনি বলে জানা যাচ্ছে।

চুক্তির ছয় মাসেরও কম সময় বাকি আছে মেসির। ফলে এখন আর নতুন কোনো ক্লাবের সঙ্গে কথা বলতে বাঁধা নেই আর্জেন্টাইন তারকার। তবু মেসি কোনো ক্লাবের সঙ্গেই সম্ভাব্য দলবদল নিয়ে আলাপ করছেন না, সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে অপেক্ষা করতে চান আরও কিছুদিন। ছয়বারের ব্যালন ডি’অরজয়ী মেসি ও ম্যানচেস্টার সিটির নির্ভরযোগ্য সূত্র ধরে ইএসপিএন জানাচ্ছে, সিটিও এ নিয়ে অপেক্ষা করতে চায় আরও কিছুদিন।

মেসির সিদ্ধান্ত নিতে দেরি হচ্ছে মূলত বার্সেলোনায় আসন্ন সভাপতি নির্বাচনের জন্য। গত অক্টোবরে হোসে মারিয়া বার্তোমেওর পদত্যাগের পর এখনো ক্লাবটি চলছে অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি কার্লোস টুস্কেটসের অধীনে। নতুন সভাপতি নির্বাচন করা হবে আগামী ৭ মার্চ। নতুন সভাপতির অধীনে নতুন প্রকল্পের ব্যাপারে জেনে তবেই ভবিষ্যৎ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন মেসি, জানাচ্ছে স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যম।

বার্সার সভাপতি নির্বাচনের তিন প্রতিদ্বন্দ্বী হোয়ান লাপোর্তা, টনি ফ্রেইক্সা ও ভিক্টর ফন্ট তিনজনই ক্লাবে মেসিকে রাখার ব্যাপারে আশাবাদী। বার্সেলোনার হয়ে ৭৬০ ম্যাচে ৬৫৪ গোল করা মেসিও অতীতে অনেকবারই নিজের ক্যারিয়ার কাতালুনিয়াতে শেষ করার ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।

তবে শেষ কিছুদিনে পরিস্থিতি পালটে গেছে। দল ইউরোপীয় পরিসরে ভুগছে, আর্থিকভাবেও ক্লাবে দেখা দিয়েছে দৈন্য, এর ফলে মেসির দল ছাড়াটাকে অনেকেই দেখছেন অবধারিত নিয়তি হিসেবে। শেষ কয়েক মাসে ব্যাপারটা থিতিয়ে পড়লেও সর্বশেষ ম্যাচে পিএসজির কাছে ৪-১ গোলে নিজেদের মাঠে হারের পর মেসির দলবদলের গুঞ্জন মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে আবারও।