কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা গবেষককে বরখাস্ত করেছে গুগল

কোম্পানির নীতিমালা লঙ্ঘনের দায়ে অনলাইন সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগলের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাবিষয়ক বিজ্ঞানী মার্গারেট মিশেলকে বরখাস্ত করা হয়েছে। শনিবার ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এক বিবৃতিতে গুগল বলেছে, ইলেক্ট্রনিক ফাইল কোম্পানির বাইরে নিয়ে গুগলের আচরণবিধি এবং নিরাপত্তা নীতিমালা লঙ্ঘন করেছেন মিশেল। গুগলের এই কর্মকর্তা তার বরখাস্তের খবর টুইটারে দিয়েছেন। তবে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি।

২০২০ সালের ৩ ডিসেম্বর কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাবিষয়ক আরেক গবেষক টিমনিট গেব্রুকে বরখাস্ত করে গুগল। গেব্রুকে বরখাস্তের প্রতিবাদে ৪ ডিসেম্বর কর্মকর্তাদের প্রতিবাদের পরিপ্রেক্ষিতে ১৯ জানুয়ারি থেকে তদন্ত শুরু করে মার্কিন এই কোম্পানি। গুগলের এমন পদক্ষেপে কোম্পানির গবেষণা এবং অন্যান্য শাখার বিভাজনের বিষয়টি সামনে এসেছে।

গুগলের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা গবেষণা বিভাগের পরিচালক জোবিন ঘাহরামানি এবং কোম্পানির একজন আইনজীবী জানিয়েছেন, শুক্রবার এক বৈঠকে মিশেল ও তার গবেষণাকর্মের সংশ্লিষ্টদের বরখাস্তের ব্যাপারে সংক্ষিপ্ত নোটিশ দেয়া হয়। বৈঠকে উপস্থিত এক কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মার্কিন এই সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্টের কর্মকর্তা অ্যালেক্স হ্যান্না টুইটারে বলেন, ‘গেব্রু ও মিশেলের মতো কর্মকর্তাদের বরখাস্তের মধ্য দিয়ে ক্যাম্পেইন শুরু করেছে গুগল।’ টুইটারে হ্যান্নার মন্তব্যের জবাবে গুগল তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানায়নি।

গুগলের শীর্ষ বিজ্ঞানীদের নিয়োগের সময় গবেষণার কাজে স্বাধীনতার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়। কিন্তু বিজ্ঞানীরা প্রযুক্তির নেতিবাচক বিষয়ের ওপর গুরুত্বারোপ ও গুগল পণ্য সম্পর্কে ব্যাপক লেখালেখি শুরু করে থাকেন।