অযোধ্যার মসজিদ প্রকল্পের কাজ শুরু ২৬ জানুয়ারি

ভারতের উত্তর প্রদেশের ধন্নিপুর গ্রামে প্রস্তাবিত ‘মসজিদ প্রকল্প’র নির্মাণকাজের প্রস্তুতি চলছে। আগামী মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে বাবরি মসজিদের পরিবর্তে আযোধ্যায় প্রস্তাবিত মসজিদ প্রকল্পের নির্মাণকাজ শুরু হবে। ইন্ডিয়া টুডেতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এমনটা জানা গেছে।

ভারতের ইন্দো-ইসলামিক কালচারাল ফাউন্ডেশন (আইআইসিএফ) ট্রাস্ট সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, ২৬ জানুয়ারি প্রকল্পের শুরু উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। গাছের চারা রোপন ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে প্রকল্পটি আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করবে।

জানা গেছে, ২৬ জানুয়ারি সকাল সাড়ে ৮ টায় প্রকল্পের জমিতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। এরপর প্রধান ট্রাস্টি এবং আইআইসিএফের সদস্য ট্রাস্টিরা গাছের চারা রোপণ করবেন।

আইআইসিএফ-এর সেক্রেটারি আতহার হুসেইন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘আইআইসিএফের এক সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, ধন্নিপুরের মসজিদ প্রকল্পের কাজ উদ্বোধনের মাধ্যমে ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে পালন করা হবে। এতে একটি হাসপাতাল, একটি জাদুঘর, একটি গ্রন্থাগার, একটি কমিউনিটি রান্নাঘর, ইন্দো-ইসলামিক সাংস্কৃতিক গবেষণা কেন্দ্র, একটি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান ও মসজিদ অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

সংবাদ সংস্থা পিটিআইয়ের বরাতে জানা গেছে, আইআইসিএফের সভাপতি জুফার আহমদ ফারুকীর সভাপতিত্বে এবং নয় ট্রাস্টি সদস্যের সবার উপস্থিতিতে একটি ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তাতে ট্রাস্টের কার্যক্রমের অগ্রগতি, বিশেষত আয়কর আইনের ছাড়পত্র পেতে প্রক্রিয়াগত বিলম্ব এবং এফসিআরএ অ্যাকাউন্ট খোলা প্রসঙ্গে আলোচনা হয়।

গত ১৯ ডিসেম্বর অনেক কিছুর পর বিতর্কিত শহর অযোধ্য থেকে ২৫ কি.মি. দূরে প্রস্তাবিত মসজিদের নকশা ও নির্মাণ পরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হয়। পরিকল্পনাধীন মসজিদটি নির্মাণে ভারতের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড ‘আইআইসিএফ’ প্রতিষ্ঠা করে।

প্রসঙ্গত, ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর অযোধ্যার ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ ভেঙে ফেলা হয়। এর প্রায় ২৭ বছর পর ২০১৯ সালের ৯ নভেম্বর ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বাবরি মসজিদ মামলার রায় দেয়। রায়ে অযোধ্যার বিতর্কিত স্থানে রামমন্দির নির্মাণের আদেশ দেওয়া হয়। পাশাপাশি অযোধ্যাতেই বিকল্প স্থানে মুসলমানদের জন্য মসজিদ নির্মাণের জন্য ৫ একর জমি দেওয়ার এবং ট্রাস্ট গঠনের নির্দেশ দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *