হাজিদের সেবায় সৌদির স্মার্ট কার্ড চালু

সৌদি আরবের হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় হাজিদের সেবা দিতে নতুন হজ প্লাটফর্ম স্মার্ট কার্ড চালু করেছে। এতে করে হজসংক্রান্ত সব কার্যক্রম ও সেবা-ব্যবস্থা হজ মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত হবে।

রবিবার (২৭ ডিসেম্বর) সৌদি গেজেটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমনটা জানা গেছে। করোনাকালের সীমিত হজে এটি পরীক্ষামূলক চালু করা হবে। এরপর আগামী বছর হজ থেকে পূর্ণরূপে চালু করা হবে বলে জানিয়েছে সৌদি সরকার।

স্মার্ট কার্ডটি হজযাত্রীর ব্যক্তিগত, চিকিৎসাগত ও আবাসিক- সব রকম তথ্য সম্বলিত হবে। তারা পবিত্র স্থানগুলোতে যাতায়াতে, তাদের আবাস-ব্যবস্থা পরিচালনা করতে এটি ভূমিকা রাখবে। এছাড়াও পবিত্র স্থানগুলোতে প্রবেশাধিকার এবং অন্যান্য সুবিধা গ্রহণ ও নিয়ন্ত্রণেও এর ভূমিকা থাকবে।

হজ পালনকারী প্রতি সদস্যকে একটি করে স্মার্ট কার্ড দেওয়া হবে। এর মাধ্যমে হজযাত্রীরা ব্যক্তিগত তথ্য যাচাই এবং চিকিৎসা ও নাগরিক সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। পাশাপাশি নিয়মবহির্ভূত পন্থায় আসা হজযাত্রীদের চিহ্নিত করা যাবে।

এছাড়াও হজের পবিত্র স্থাপনাগুলোতে স্থাপিত বিভিন্ন সাইটের মাধ্যমে স্মার্ট কার্ডটি পড়া যাবে। এতেকরে হজযাত্রীর তথ্য সম্পর্কে সহজেই জানা যাবে।

সৌদির হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয় ২০২০ সালের মক্কা সাংস্কৃতিক ফোরামে স্মার্ট কার্ড চালুর উদ্যোগ নিয়ে অংশগ্রহণ করেছিল। মক্কা কালচারাল ফোরামের বিশেষ উদ্যোগে এই স্মার্ট কার্ডের চালু করা হয়েছে।

এটি সৌদি সরকারের ভিশন ২০৩০ এ গৃহীত উদ্যোগের একটি অংশও বটে। এই উদ্যোগ বাস্তবায়নের মাধ্যমে হজযাত্রীদের সেবায় প্রযুক্তি ব্যবহারের সাফল্য প্রমাণিত হয়।

স্মার্ট কার্ডটি নিকটবর্তী স্থানের যোগাযোগ সেন্টারের (এনএফসি) মাধ্যমে পরিচালনা করা হবে। এর মাধ্যমে তারবিহীন যোগাযোগ প্রযুক্তির সাহায্যে স্বল্প-পরিসরের এনএফসি-এর অধীনে থাকা ডিভাইসগুলো একটি অপরটির সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করে।

২০২১ সালে অনুষ্ঠিতব্য হজের সময় কার্ডটি সক্রিয় করা হবে। ২০১৯ সালে করোনা মহামারিতে অনুষ্ঠিত সীমিত হজের সময় পরীক্ষামূলক চালু করা হয়েছিল। সব ধরনের সেবা নিশ্চিত করতে কার্ডটি একটি কেন্দ্রের মাধ্যমে পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *