ভালোবাসার উপহার

ফেব্রুয়ারিকে বলা হয় ভালোবাসার মাস। এই মাসের চৌদ্দ তারিখে বিশ্বজুড়ে ভ্যালেন্টাইন ডে বা ভালোবাসা দিবস পালন করা হয়। দিবস নিয়ে কথা উঠলেই এর পক্ষ এবং বিপক্ষ- দুটি দল তৈরি হয়ে যায়। একপক্ষ রয়েছে যারা ভালোবাসা দিবস পালন করতে আগ্রহী নয়, এদিকে অন্যপক্ষের নানা পরিকল্পনা থাকে এই দিনকে ঘিরে। যারা ভালোবাসা দিবস পালন করতে চান, তারা প্রিয়জনকে নতুন কিছু উপহার দিয়ে চমকে দিতে পারেন।

কেমন হবে উপহার?

উপহার মানে যে খুব দামী কিছু দিতে হবে এমন কিন্তু নয়। উপহার দিন আপনার সামর্থ্য অনুযায়ী। হতে পারে তা নিজের হাতে তৈরি কিছু। হতে পারে সস্তায় কেনা কোনো উপহার, তবে তার সঙ্গে আপনার অনেকখানি ভালোবাসা মিশিয়ে দিন। উপহার দেয়া নেয়ার মাধ্যমে দু’জনের পছন্দ-অপছন্দ সম্পর্কে আরও বেশি জানা যায়। এতে সম্পর্ক আরও গভীর হয়, বাড়ে ভালোবাসা। তবে উপহার কখনো চেয়ে নেবেন না বা প্রিয়জনকে উপহার দেয়ার জন্য বাধ্য করবেন না।

হতে পারে ছোট্ট কিছু

ভালোবাসার উপহার ভারী কিছু না হোক। বিশাল এক বক্স ধরিয়ে দিলে সে তা সব সময় সঙ্গে রাখতে পারবে না। বরং এমন কিছু দিন যা ছোট্ট এবং সুন্দর। এমন ‍কিছু যা সব সময় তার কাজে লাগবে বা চোখের সামনে থাকবে। হতে পারে তা ছোট্ট পেনডেন্ট, ঘড়ি, কিংবা ব্রেসলেট। তার ছোট ছোট ভালোলাগাও যে আপনি অনেক গুরুত্ব দিয়ে দেখেন, তা তাকে বুঝতে দিন।

প্রিয়জনের প্রিয় খাবার

সব মানুষেরই কিছু না কিছু প্রিয় খাবার থাকে। ভালোবাসার উপহার হিসেবে প্রিয়জনের পছন্দের খাবারটি রেঁধে ফেলুন না! তার কাছ থেকে জেনে নিন তার পছন্দের খাবারের নাম। সেখান থেকে আপনার সাধ্য অনুযায়ী রান্না করে তাকে উপহার দিন। হতে পারে তা কেক, কুকিজ কিংবা বিরিয়ানি। এমনকী হতে পারে সাধারণ বাঙালি খাবার। তবে প্রিয়জনের হাতের রান্না যে কারও কাছেই সবচেয়ে দামী উপহারের একটি।

বেড়াতে যান

উপহার যে সব সময় বস্তু হতে হবে এমন কোনো কথা নেই। অন্যভাবেও তাকে চমকে দিতে পারেন। তাকে নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন কাছে কোথাও থেকে। এমন কোনো জায়গা যেখানে বেড়াতে তিনি পছন্দ করবেন। অথবা যেখানে যাওয়ার ইচ্ছা সে অনেকদিন ধরেই জানাচ্ছিল। দেখবেন, এতে সে ভীষণ খুশি হবে।

শখের কিছু

ব্যস্ততা কিংবা সংসারের চাপে আমাদের প্রিয়জনেরা অনেকরকম শখ কিংবা ইচ্ছা বিসর্জন দিয়ে থাকেন। আপনার প্রিয়জনের খোঁজ নিন। কোন কাজটি করতে সে বেশি পছন্দ করে কিন্তু সুযোগ পাচ্ছে না তা জেনে নিন। হতে পারে তা ছবি আঁকা, ছবি তোলা, বই পড়া, গান গাওয়া বা লেখালেখি। এবার ভালোবাসা দিবসে তার পুরোনো শখকে নতুন করে জাগিয়ে তুলতে পারেন তাকে ছোট্ট কোনো উপহার দেয়ার মাধ্যমে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *