দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে সিরিজ জয় পাকিস্তানের

ঘরের মাঠে আধিপত্য ধরে রেখেছে পাকিস্তান। দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের শুরুর ম্যাচে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৭ উইকেটে হারিয়েছিল স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় টেস্টেও বাজিমাত অধিনায়ক বাবর আজমের দলের। রাওয়ালপিণ্ডিতে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে প্রোটিয়াদের ৯৫ রানে হারিয়ে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে পাকিস্তান।

করোনা প্রাদুর্ভাবের পর প্রথমবারের মতো ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ খেলতে নেমেছে পাকিস্তান। ৩টি টি-টোয়েন্টি সঙ্গে ২টি টেস্ট ম্যাচ খেলবে দু’দল পাকিস্তান-দক্ষিণ আফ্রিকা। সাদা পোশাকের সিরিজ দিয়ে এই সফর শুরু করেছে প্রোটিয়ারা। তবে একেবারেই সুবিধা করতে পারেনি সফরকারীরা। অধিনায়ক ডি ককের দলকে দুই ম্যাচেই হারিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ১২০ পয়েন্ট তুলে নিয়েছে পাকিস্তান।

ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে স্কোর বোর্ডে ২৭২ রানের পুঁজি পায় স্বাগতিকরা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৮ রান আসে ফাহিম আশরাফের ব্যাট থেকে। পাকিস্তানকে গুঁটিয়ে দিয়ে ব্যাট করতে নামা দক্ষিণ আফ্রিকা নিজেদের শুরুর ইনিংসে সুবিধা করতে পারেনি। অলআউট হয় মাত্র ২০১ রানে। অর্ধশতকের দেখা পাননি কোনো প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান। সর্বোচ্চ ৪৪ রান করে অপরাজিত থাকেন বাভুমা।

৭১ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ানের হার না মানা ১১৫ রানের কল্যাণে অলআউট হওয়ার আগে বোর্ডে ২৯৮ রান তুলতে পারে স্বাগতিকরা। আগের লিড সহ দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে জয়ের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৭০ রান।

এই রান তাড়া করতে নেমে জবাবটা ভালোই দিচ্ছিলেন সফরকারী দলের ব্যাটসম্যানরা। দলের হয়ে ইনিংস শুরু করতে এসে ডেন এলগার ১৭ রানে আউট হলেও তিন নম্বরে ব্যাট করতে আসা নতুন ব্যাটসম্যান ভ্যান দার দুসেনকে নিয়ে লড়াই জমিয়ে তোলেন আরেক ওপেনার এইডেন মার্করাম। দ্বিতীয় ইনিংসে দুজন যোগ করেন ৯৪ রান। ৪৮ রানে থাকা দুসেনকে ফিরিয়ে ব্রেক থ্রু এনে দেন হাসান আলী। ৭ রান পরেই ব্যক্তিগত ৫ রান করে হাসানের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন ফাফ ডু প্লেসি।

মার্করাম-বাভুমার ব্যাটে জয়ের দিকেই ছুঁটছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। চতুর্থ উইকেটে দুই ব্যাটসম্যানের ১০৬ রানের জুটি কাজে আসেনি। টেস্টে ব্যক্তিগত চতুর্থ সেঞ্চুরি তুলে নেন মার্করাম। তবে দিন শেষে তার এক শতক কাজে আসেনি। ১০৮ রানে এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান আউট হলে সেট ব্যাটসম্যান বাভুমা একই পথ অনুসরণ করেন অর্ধশতক পূর্ণ করার পর। শেষ দিকে ডি কক, মুলডার, রাবাদারা ব্যাট হাতে ব্যর্থ হলে ২৭৪ রানেই গুঁটিয়ে যায় প্রোটিয়ারা। ফলে ৯৫ রানে ম্যাচ জয়ের পাশাপাশি ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে মাঠ ছাড়ে পাকিস্তান। বল হাতে প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিসেও ৫ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরার হন হাসান আলী।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

পাকিস্তান: ২৭২ ও ২৯৮ (রিজওয়ান ১১৫, নোমান ৪৫, আজহার ৩৩; লিন্ডে ৫/৬৪)
দক্ষিণ আফ্রিকা: ২০১ ও ২৭৪ (মার্করাম ১০৮, বাভুমা ৬১; হাসান ৫/৬০, শাহীন৪/৫১)

ফলাফল: পাকিস্তান ৯৫ রানে জয়ী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *