ছুটি চেয়ে আবেদন করেছেন সাকিব

গুঞ্জন ছিল বাংলাদেশ দলের আসন্ন নিউজিল্যান্ড সফরে থাকবেন না সাকিব আল হাসান। শেষপর্যন্ত এই সফরে সাকিব থাকবেন কি, থাকবেন না, সেটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান জানিয়েছেন, ছুটি চেয়ে আবেদন করেছেন সাকিব। তার ছুটির বিষয়ে এখনো কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি বিসিবি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চলমান সিরিজ শেষে নিউজিল্যান্ড খেলতে যাবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। এই সিরিজের স্কোয়াডে তাকে বিবেচনা না করতে বোর্ডের কাছে চিঠি দিয়েছেন সাকিব। মূলত সিরিজ চলাকালীন তৃতীয় সন্তানের বাবা হবেন তিনি। সন্তানসম্ভবা স্ত্রীর পাশে থাকতে এই সফর থেকে নাম প্রত্যাহার করার আবেদন করেছেন বাঁহাতি অলরাউন্ডার।

বিষয়টি ঢাকা পোস্টকে নিশ্চিত করেছেন আকরাম খান। সাকিব ছুটির আবেদন করে চিঠি পাঠালেও তার ছুটি পাওয়া বা না পওয়ার বিষয়ে এখনো কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানান আকরাম। তিনি বলে, ‘নিজিল্যান্ড সফরের সময়টায় দলের সঙ্গে থাকতে পারবেন না সাকিব। এজন্য বোর্ডে লিখিতভাবে ছুটি চেয়ে আবেদন করেছে। তবে আমরা এখনো কোনও সিদ্ধান্ত জানায়নি তাকে।’

ঘরের মাঠে উইন্ডিজ সিরিজের পর সমান ৩ ম্যাচের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলতে চলতি মাসেই নিউজিল্যান্ডের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার কথা আছে টাইগারদের। সেখানে ৫ দিনের অনুশীলন ক্যাম্প করবে বাংলাদেশ দল। এরপর পঞ্চাশ ওভারের ম্যাচ তিনটি হবে যথাক্রমে; ২০, ২৩ ও ২৬ মার্চ। ডানেডিন, ক্রাইস্টচার্চ ও ওয়েলিংটনে। এরপর কুঁড়ি ওভারের ফরম্যাটের তিনটি ম্যাচ হবে আগামী ২৮ মার্চ, ৩০ মার্চ ও ১ এপ্রিল। এই সিরিজে সাকিব না থাকলে বিপাকে পড়তে হবে সফরকারীদের।

সদ্যই নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন সাকিব। উইন্ডিজের বিপক্ষে ৩ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে প্রত্যাবর্তন হয় টাইগার অলরাউন্ডারের। ফিরেই বাজিমাত সাকিবের। ব্যাটে-বলে অনবদ্য পারফরম্যান্সে দলকে ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতিয়ে সিরিজ সেরার পুরস্কার হাতে তোলেন তিনি। এরপর টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে চোটে পড়েন। ইনজুরির মাত্রা তীব্র হওয়ায় সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট থেকে ছিটকে গেছেন সাকিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *