পিএসজি মেসিকে নিয়ে ‘বেশি কথা বলে’

গেল গ্রীষ্মকালীন দলবদল থেকেই মেসির ক্লাব ছাড়ার গুঞ্জনে মুখর ইউরোপীয় সংবাদ মাধ্যম। সম্প্রতি এতে যোগ দিয়েছি পিএসজিও। নেইমার, পিএসজির ক্রীড়া ব্যবস্থাপক লিওনার্দোর পর এবার মেসির আর্জেন্টিনা সতীর্থ আনহেল ডি মারিয়াও যোগ দিয়েছেন মেসিকে নিয়ে মন্তব্য করার তালিকায়। এ ব্যাপারটাই বাড়াবাড়ি মনে হচ্ছে বার্সেলোনা কোচ রোনাল্ড কোম্যানের কাছে।

সম্প্রতি নিমের বিপক্ষে পিএসজির ৩-০ ব্যবধানে জয়ের পর ডি মারিয়া সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, মেসিকে দলে ভেড়ানোর ‘বড় সুযোগই’ আছে তার দলের সামনে। তবে এর বেশ কিছুদিন আগে দলটির কোচ মরিসিও পচেত্তিনো বলেছিলেন যে, ‘কোনো খেলোয়াড়, যে কিনা একটা দলে খেলছে, তার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে তাকে নিয়ে মন্তব্য করাটাকে ঠিক মনে করি না আমি’।

বার্সা কোচ কোম্যান এবার জানালেন ডি মারিয়ার এ ভাষ্য মানহানিকর। গ্রানাডার বিপক্ষে ৫-৩ গোলে জয়ের পর তিনি বলেন, ‘আমার মতে, ডি মারিয়ার এ উক্তি মানহানিকর। যে এখনো বার্সার খেলোয়াড়, তাকে নিয়ে এমন মন্তব্য করাটা সম্মানজনক নয়। এটা মোটেও ভালো নয়। এমন মন্তব্য করাটা ভুল।’

আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি নিজেদের মাঠে বার্সা আতিথ্য দেবে পিএসজিকে। তার আগে ডি মারিয়ার এমন মন্তব্য পরিস্থিতি আরও জটিল করে তুলবে, মত কোম্যানের।

“এটা ঠিক নয়। পিএসজি মেসিকে নিয়ে অনেক বেশি কথা বলছে। সে বার্সায় খেলছে এখনো। তার উপর আগামী কিছু দিনের ভেতরই আমাদের দুই লেগের একটা লড়াই আছে, এসব কথাবার্তা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের খেলাটার পরিবেশ উত্তপ্ত করে তুলতে পারে”
-রোনাল্ড কোম্যান, কোচ, বার্সেলোনা

কোচ কোম্যান বিরক্ত হবেনই না কেন? ৩৩ বছর বয়সী মেসি যে এখনো দলের প্রাণভোমরা! এইতো গ্রানাডার বিপক্ষে ৩-৫ গোলের দারুণ জয়েও বেশ অবদান ছিল মেসির। গোলে যোগান দিয়েছেন কেবল একটিতে তবে বাকি চারটি গোলও গড়ে দেয়ার কারিগর ছিলেন তিনি। তাতেই তো ম্যাচের একটা বড় সময় পিছিয়ে থেকেও অতিরিক্ত সময়ে কোপা দেল রের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে বার্সা।

কোচ কোম্যানের কাছেও এ কীর্তি অবিশ্বাস্য ঠেকছে রীতিমতো! বললেন, ‘এটা অবিশ্বাস্য। ফুটবল অবিশ্বাস্য। আমার মনে হয় আমরা ভালোই করেছি। পরিস্থিতি সামলে নেয়ার সুযোগ আগেই এসেছিল আমাদের কাছে, পরে অবশ্য ব্যাপারটা ঠিকঠাকই সামলে নিয়েছি আমরা। আমাদের দলটা অবিশ্বাস্য ছিল।’

দলের মানসিকতাকেও ভূয়সী প্রশংসায় ভাসিয়েছেন তিনি। বলেছেন, ‘২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকার পর যে মানসিকতা দেখিয়েছে দল, তা দুর্দান্ত ছিল। দুর্ভাগ্য থাকা স্বত্বেও আমরা হাল ছাড়িনি, তিন বার গোলপোস্ট আমাদের গোলবঞ্চিত রেখেছে, আমি জানি না ওরা কতোগুলো শট ঠেকিয়েছে। যোগ্য দল হিসেবেই জিতেছি আমরা।’