মুগ্ধতা ছড়িয়ে মিরাজের প্রথম সেঞ্চুরি

সাগরিকার পাড়ে সৌরভ ছড়ালেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সাবলীল ব্যাটিংয়ে ছাড়ালেন নিজেকেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চলমান দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে পুরো আলো কেড়ে নিলেন মিরাজ। ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ পান তিনি। পরে ১৬৮ বলে ১০৩ রানে অপরাজিত থাকেন এই অলরাউন্ডার।

এর আগে ঘরোয়া অথবা আন্তর্জাতিক, স্বীকৃত কোন সংস্করণেই তিন অঙ্কের দেখা পাননি মিরাজ। বঙ্গবন্ধু বিপিএলে খুলনার হয়ে খেলতে নেমে সর্বোচ্চ ৮৭ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তিন ফরম্যাট মিলিয়ে এর আগে খেলা ৭৯ ম্যাচে তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান ছিল ৬৮ রান, ঢাকা টেস্টে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।

চট্টগ্রাম টেস্টে উইন্ডিজের বিপক্ষে নিজেকে ছাড়িয়ে গেলেন ২৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। ৯৯ বলে অর্ধশতক পূরণ করা মিরাজ পরে সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন ১৫৯ বলে। এরপর ১০৩ রানের মাথায় রাকিম কর্নওয়েলের বলে আউট হন তিনি। ১৬৮ বলের ইনিংসটি এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান সাজিয়েছেন ১৩টি চারের মারে।

ইনিংসে বেশ কয়েক বার জীবন পেয়েছেন। তাতে অবশ্য কমেনি মিরাজের সেঞ্চুরির মাহাত্ম্য। দুর্দান্ত সব শটে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন তিনি। তার এই সেঞ্চুরি বাংলাদেশকে নিয়ে গিয়েছে রান পাহাড়ে।

মোহাম্মদ রফিক, খালেদ মাসুদ পাইলট, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আবুল হাসান রাজু ও সোহাগ গাজীর পর বাংলাদেশের পক্ষে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে আট নম্বর বা তার নিচে নেমে টেস্ট সেঞ্চুরি করেছেন মিরাজ।