খেলা

মে মাসে বাংলাদেশ সফরে আসছে শ্রীলঙ্কা

করোনার কারণে প্রায় সাড়ে ১০ মাস আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে ছিল বাংলাদেশ। চলতি বছরের শুরু থেকে ব্যস্ত সূচি শুরু হয়েছে টাইগারদের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চলমান সিরিজ শেষে নিউজিল্যান্ডে যাবে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। এরপর শ্রীলঙ্কার মাটিতে দুই ম্যাচের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াই। মে মাসে বাংলাদেশে আসবে লঙ্কানরা।

কোভিড-১৯ এর জেরে আন্তর্জাতিক সিরিজের সূচিতে বেশ গড়বড় হয়েছে। ২০২০ সালে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল বাইশ গজের লড়াই। তার জের এসে পড়েছে ২০২১ সালের সূচিতে। অনেক বোর্ডই চাইছে স্থগিত হওয়া সিরিজ মাঠে ফেরাতে। এর সঙ্গে চলতি বছরের
এফটিপি সূচি তো রয়েছেই।

সূচি অনুযায়ী গত বছরের সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে দুই ম্যাচের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিতে শ্রীলঙ্কা যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশ দলের। সেই সফর দিয়েই করোনার পর ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তনের দিনক্ষণ চূড়ান্ত ছিল টাইগারদের। তবে কোয়ারেন্টাইন ইস্যুতে শেষ পর্যন্ত লঙ্কা সফর করেননি তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিমরা।

দুই দফায় স্থগিত হওয়া সেই সফর আবার করবে বাংলাদেশ দল। এ বিষয়ে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে পাকা কথা সেরে রেখেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে ঠিক কবে হবে সেই সিরিজ, সেটি এখনো নিশ্চিত নয়। বাংলাদেশ দলের সফর নিশ্চিত না হলেও আগামী মে মাসে সুপার লিগের ৩টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে বাংলাদেশে আসবে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল। এখনো দিনক্ষণ ঠিক না হলেও লঙ্কানদের আসার ব্যাপারটি চূড়ান্ত।

বুধবার চট্টগ্রামে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান বলেন, ‘শ্রীলঙ্কা দল মে মাসে বাংলাদেশে আসবে। তবে এর আগেও আমরা সেখানে যেতে পারি, পরেও যেতে পারি। দুইটা ট্যুরই নিশ্চিত আছে।’

আকরাম আরও যোগ করেন, ‘যেহেতু এটা (টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ) বাতিল হয়ে গিয়েছিল, আর আমাদের দুইটা বোর্ডেরই সময়ের একটা ব্যাপার আছে। আমরা চিন্তাভাবনা করছি। আমাদের খেলোয়াড়দের বিশ্রামেরও একটা ব্যাপার আছে। এটা আসলে খেলোয়াড়দের জন্য বেশ কষ্টসাধ্য। জৈব সুরক্ষা বলয় খেলোয়াড়দের জন্য বড় একটা চাপ। তো এটাও আমরা মাথায় রেখেছি। খেলোয়াড়দের বিশ্রাম গুরুত্বপূর্ণ। সবকিছু বিবেচনা করেই আমরা ট্যুরটা করছি।’

সংশ্লিষ্ট খবর

Back to top button