ওজন বাড়াতে চান?

বেশিরভাগেরই প্রধান সমস্যা হলো ওজন। অর্থাৎ ওজন কমানো নিয়ে নানা কসরত, নানা প্রচেষ্টার পরেও সফল হন না অনেকে। এদিকে যাদের ওজন কম, ওজন বাড়াতে চান তাদের প্রচেষ্টা থেকে যায় আড়ালেই। এমন অনেকেই আছেন যারা ওজন বাড়ানোর নানা চেষ্টা করেও কাঙ্ক্ষিত ওজনে পৌঁছাতে পারছেন না। বাড়তি ওজন যেমন দুশ্চিন্তার, কম ওজনও ঠিক তাই। কারণ দুটিই আমাদের সুস্থ থাকার পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তাই সুস্থতা নিশ্চিত করার জন্য সঠিক ওজন থাকা জরুরি।

কীভাবে বুঝবেন

কীভাবে বুঝবেন আপনার ওজন সঠিক কি-না? এক্ষেত্রে আপনাকে সাহায্য করবে বডি মাস ইনডেক্স (বিএমআই) বা উচ্চতা ও ওজনের অনুপাত। যদি আপনার বিএমআই পয়েন্ট স্বাস্থ্যকর থাকে তবে ওজন বাড়ানোর দরকার নেই। আর যদি ওজন কম হয় তখন অবশ্যই সঠিক ওজন অর্জন করতে হবে। এক্ষেত্রে অবহেলা করলে তা আরও অনেক অসুখ ডেকে আনতে পারে।

যদি আপনি নানারকম প্রচেষ্টার পরেও ওজন বাড়াতে সক্ষম না হন তবে বুঝবেন আপনার প্রচেষ্টায় কোনোরকম অসঙ্গতি রয়েছে। তাই প্রচেষ্টা এমন হওয়া প্রয়োজন যা ফলপ্রসূ হবে। বিশেষজ্ঞর বাতলে দিয়েছেন কিছু সহজ উপায়, সেসব সঠিকভাবে মেনে চললে মাত্র এক সপ্তাহের প্রচেষ্টায়ই ওজন বাড়ানো সম্ভব। বিশ্বাস না হলে মেনেই দেখুন না!

একমুঠো বেশি খান

প্রতিবেলায় যতটুকু খাবার খাওয়ার অভ্যাস, তার থেকে একমুঠো বেশি খাবার খান। কারণ আপনার ওজন কম থাকার বড় কারণ হতে পারে কম খাওয়া। একারণেই বাড়তি খাবার খেলে ওজন বৃদ্ধির সম্ভাবনা বাড়বে। প্রতিবেলার খাবারের সাথে তার চারভাগের একভাগ খাবার বাড়িয়ে খান। তবে অতিরিক্ত খাওয়া শুরু করবেন না। খাবারের অভ্যাসের সঙ্গে আপনার শরীরকে মানিয়ে চলার ব্যবস্থা করে দিতে হবে।

খেতে হবে শুকনো ফল

ফল খেতে খুব বেশি পছন্দ করেন না এমন মানুষের কাছেও শুকনো ফল প্রিয়। কারণ যেকোনো শুকনো ফলের স্বাদই মজাদার। মুঠো মুঠো খেয়ে সময় পার করারও এক অনন্য খাবার এই শুকনো ফল। শুকনো সব ফলই উপকারী। এর ভেতরে বাদাম, কিশমিশ, খেজুর ইত্যাদি ফল একটু বেশি উপকারী। তাই প্রতিদিন সকালের নাস্তায় একমুঠো শুকনো ফল থাকুক। এই খাবারগুলোতে থাকে প্রচুর ক্যালরি। আর ওজন বাড়ানোর জন্য ক্যালরির প্রয়োজন পড়ে, সেকথা তো সবারই জানা!

সবজি ও ফল খেতে হবে

অনেকে মনে করেন ফল ও শাক-সবজি বুঝি শুধু ওজন কমাতেই সাহায্য করে। কিন্তু ওজন কমানোর পাশাপাশি ওজন বাড়াতেও সাহায্য করে ফল ও শাক-সবজি। কিছু ফল ও সবজিতে আছে প্রচুর ক্যালরি। যেমন আম, লিচু, কলা, কাঁঠাল, পেঁপে ইত্যাদি ফল ওজন বাড়াতে সাহায্য করে। আবার সবজির মধ্যে মিষ্টি আলু, মিষ্টি কুমড়া, কাঁচা কলা ইত্যাদি ওজন বাড়ায়। তাই ওজন বাড়াতে চাইলে নিয়মিত এসব ফল ও সবজি খান।

বেশি বেশি ক্যালরি

যেসব খাবারে ক্যালরি বেশি সেসব খাবার রাখুন পাতে। ডিম, পনির, ঘি, মাখন, গরু-খাসির মাংস, আলু ভাজা, চকোলেট, কিশমিশ, খেজুর, মিষ্টি জাতীয় খাবার, দই, কলা, আঙুর, আনারস- এসব খাবার উচ্চ ক্যালরিযুক্ত। চিকিৎসকের নিষেধ না থাকলে এই খাবারগুলো খেতে পারেন নিয়মিত। এতে আপনার ওজন বাড়বে দ্রুত।

ঘুমের আগে

প্রতিদিন স্বাস্থ্যকর খাবার তো খাবেনই, সেইসঙ্গে ঘুমাতে যাওয়ার সময়ও খেয়াল রাখতে হবে কিছু বিষয়ে। ঘুম যেন নির্বিঘ্ন হয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। ঘুম ভালো হলে তা ওজন বাড়াতে সাহায্য করবে। একগ্লাস গরম দুধে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করতে পারেন ঘুমাতে যাওয়ার আগে। এটি আপনাকে বাড়তি শক্তি দেবে।

শরীরচর্চায় মন দিন

এটি অনেকেরই ধারণা যে, শুধু ওজন বাড়লেই তা কমানোর জন্য শরীরচর্চা করতে হয়। কিন্তু মূল বিষয় হলো, সুস্থ থাকার জন্য শরীরচর্চা প্রয়োজন। তাই ওজন বেশি থাকুক বা কম, শরীরচর্চা করতে হবে সব সময়। পাশাপাশি খেতে হবে পুষ্টিকর খাবার। এতে আপনার ওজন বৃদ্ধি অনেকটাই নিশ্চিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *