জুমের চীনা নির্বাহীর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের গ্রেফতারি পরোয়ানা

১৯৮৯ সালের ৪ জুন সংঘটিত চীনের ‘তিয়েনআনমেন স্কয়ার গণহত্যা’ নিয়ে আলোচনা করতে গত জুনে আয়োজিত একটি ভার্চুয়াল মিটিং বন্ধ করে দেওয়ার জন্য জুমের সাবেক এক চীনা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কৌঁসুলিরা। তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাও জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, জুমের সেই চীনা কর্মকর্তার নাম জিনজিয়াং জিন। মার্কিন প্রসিকিউটরদের অভিযোগ, গত মে এবং জুনে অন্তত এ সংশ্লিষ্ট চারটি জুম মিটিং বন্ধ করার কাজে জড়িত ছিলেন তিনি। এসব ভার্চুয়াল বৈঠকের আয়োজক ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের মানুষজন।

যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ এক বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, জিনজিয়াং জিন- যিনি জুলিয়েন জিন নামেও পরিচিত- বেআইনি ষড়যন্ত্রের জন্য অভিযুক্ত হয়েছেন।
মার্কিন কৌঁসুলিরা বলছেন, ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে জুম কর্মকর্তা জিনজিয়াং জিন চীন সরকারের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ও ধর্মীয় বক্তব্য বন্ধের ষড়যন্ত্র করেছিলো।

যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত অ্যাটর্নি জেনারেল সেথ ডুচার্ম বলেন, জিনজিয়াং জিন ইচ্ছাকৃতভাবে এসব অপরাধ করে এসেছেন এবং কোম্পানিটিকে ভুল পথে পরিচালনা করেছেন।

বিচার বিভাগের বিবৃতিতে বলা হয়, জিনের দেয়া তথ্য থেকে সুবিধা নিয়েছে চীন।

ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক কোম্পানি জুম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এটা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বিবেচনার বিষয়। তারা সেই কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করবে। তবে এ বিষয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি চীন।

উল্লেখ্য, ১৯৮৯ সালে বেইজিংয়ের প্রাণকেন্দ্র তিয়েনআনমেন চত্বরে ছাত্ররা বিক্ষোভ শুরু করে। বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করার উদ্দেশ্যে চীনের তখনকার সরকার বিক্ষোভকারীদের ওপর ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞ চালায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *