চুল পড়া কমছেই না?

অনেকের ক্ষেত্রে মন খারাপের বড় কারণ হলো চুল পড়ে যাওয়া। স্বাভাবিক নিয়ম হলো, প্রতিদিন যতগুলো চুল ঝরবে ঠিক ততগুলোই গজাবে। কিন্তু এই অনুপাত ঠিক না থাকলেই ঘটে বিপত্তি। অর্থাৎ, চুল গজানোর তুলনায় চুল পড়ার পরিমাণ বেড়ে গেলে তখন চুল পাতলা হতে শুরু করে। আপনার যদি প্রতিদিন একশোটির মতো চুল পড়ে তবে চিন্তার কিছু নেই। কিন্তু এর থেকে বেশি চুল পড়লে তা দুশ্চিন্তার বিষয়। মাথায় নতুন চুল কতটা গজাবে তা নির্ভর করে আপনার চুলের প্রকৃতি, মাথার ত্বকের ধরন, আবহাওয়া ইত্যাদির ওপর। চুল পড়া নিয়ে বাড়তি দুশ্চিন্তা না করে নিয়মিত যত্ন নিতে হবে চুল ও স্ক্যাল্পের। চুল পড়ার কারণ জানা থাকলে মাধান পাওয়া সহজ হবে।

রক্তস্বল্পতা নয় তো?

রক্তস্বল্পতা একটি পরিচিত অসুখ। শরীরে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় উপাদানের অভাবে এই রোগ দেখা দিতে পারে। চুল পড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ হতে পারে এই রক্তস্বল্পতা। তাই সব সময় সচেতন থাকুন। শরীরে রক্তস্বল্পতা যাতে বাসা বাঁধতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখুন। প্রয়োজনীয় খাবার রাখুন প্রতিদিনের তালিকায়। যদি রক্তস্বল্পতা দেখা দেয় তবে দ্রুত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও ওষুধের ব্যবস্থা করতে হবে। এতে রক্তস্বল্পতার সমস্যা দূর হওয়ার পাশাপাশি চুল পড়াও কমবে অনেকটা। তখন কম বয়সে মাথায় টাক পড়ার সমস্যা থাকবে না।

অ্যালার্জি বা সংক্রমণ

অনেক সময় মাথার ত্বকে অ্যালার্জি বা নানারকম সংক্রমণ দেখা দিতে পারে। এমন সমস্যা দেখা দিলে অবহেলা করে ফেলে রাখবেন না। মাথার ত্বকের এই সমস্যা হতে পারে চুল পড়ার অন্যতম কারণ। আপনার যদি মাথার ত্বকে ভীষণ চুলকানি অনুভব হয়, ফুসকুড়ি দেখা দেয় কিংবা আঁশের মতো উঠতে থাকে তবে বুঝবেন অ্যালার্জি বা অন্য কোনো সংক্রমণ হয়েছে। এমন ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। পাশাপাশি চুল ও স্ক্যাল্পের যত্নে হতে হবে সচেতন।

ভিটামিনের অভাব

ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার আমাদের শরীরের জন্য কতটা উপকারী সে সম্পর্কে কম-বেশি সবারই জানা। শরীরে ভিটামিন বি এর অভাব হলে চুল ঝরে যায়। আবার ধরুন আপনি শাক-সবজি খাওয়ার পরিমাণ কমিয়ে দিলেও চুল ঝরতে শুরু করবে। প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় ভিটামিন সি রাখতে ভুলবেন না। কারণ ভিটামিন সি এর অভাবও চুল পড়ার বড় কারণ। চুল সুস্থ ও সুন্দর রাখার জন্য বিভিন্ন ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার বিকল্প নেই।

খাওয়া এবং ঘুম

খেতে ইচ্ছা না হলে খান না কিংবা রাতের বেশিরভাগ সময় জেগে কাটান- এমন অভ্যাসের মারাত্মক প্রভাব পড়তে পারে আপনার শরীরে। যার ফলস্বরূপ শুরু হতে পারে চুল পড়া। নিয়ম মেনে খাবার না খেলে কিংবা ঘুম ভালো না হলে তার প্রভাব পড়ে মনেও। কোনো বিষয় নিয়ে দুশ্চিন্তায় বা উদ্বেগে থাকা শরীর ও মনের জন্য ক্ষতিকর। চুল পাকা এবং চুলের গোড়া দুর্বল হয়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ হলে চুলের রঞ্জক পদার্থ কমে যাওয়া। আর এর নেপথ্যের কারণ হলো মানসিক চাপ। তাই মানসিক চাপমুক্ত থাকতে সঠিক সময়ে খাওয়া ও ঘুম জরুরি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *