যে ৫ খাবার বিকেলের নাস্তায় সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর

তিন বেলা খাবারের বাইরে হালকা নাস্তা খাওয়ার অভ্যাস আমাদের প্রায় সবারই। বিশেষ করে বিকেলের নাস্তা বেশি খাওয়া হয়। এর কারণ হলো দুপুর এবং রাতের মধ্যে সময়ের ব্যবধানটা একটু বেশি। যে কারণে বিকেল হলে ক্ষুধা অনুভব হতে থাকে। আর বিকেলে ক্ষুধা লাগলে তা নিয়ন্ত্রণ করাটা কঠিন হয়ে পড়ে। তখন হাতের কাছে যে ধরনের খাবার পাওয়া যায় তাই আমরা পেট ভরে খেয়ে নেই।
বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ভাজাভুজি কিংবা কেক-পেস্ট্রি- এ ধরনের খাবার খাওয়া হয়। আর সেসব খাবার স্বাস্থ্যকর নয় তেমন। বিকেলে খাবার খাবেন তবে তা যেন স্বাস্থ্যকর হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। এমন পাঁচটি খাবার রয়েছে বিকেলের নাস্তায় স্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। চলুন জেনে নেয়া যাক-

স্বাস্থ্যকর সালাদ খান

সালাদ এমন একটি খাবার যা খুব সহজেই তৈরি করা যায় এবং বেশ স্বাস্থ্যকরও। সুস্বাদু এই খাবারটি আপনি তাইলে তৈরি করতে পারবেন বিভিন্নভাবে কাঁচা সবজি দিয়ে। এমনকি মুরগির মাংস চিংড়ি ইত্যাদিও তৈরি করা যায় সালাদ। আপনার পছন্দ মতো সবজি কুচি করে নিয়ে তার সঙ্গে টক দই, লবণ, মরিচ, চাট মশলা ইত্যাদি মিশিয়ে সালাদ তৈরি করতে পারেন। চাইলে সেদ্ধ ডিম, লেবুর রস, পছন্দমতো সবজি, লবণ, মরিচ ইত্যাদি দিয়ে তৈরি করতে পারেন এগ সালাদ। সালাদের সঙ্গে সেদ্ধ ছোলা ও বাদাম মেশালে তা আরো বেশি স্বাস্থ্যকর হয়। নানারকম ফল দিয়ে সালাদ তৈরি করতে পারেন ফ্রুট সালাদ।

খেতে পারেন যেকোনো ফল

ফলে হতে পারে বিকেলের নাস্তায় একটি স্বাস্থ্যকর খাবার। তবে ভালো না লাগলে একটু বিভিন্নভাবে খেতে পারেন। সালাদ করে খেতে পারেন অথবা ফল সুন্দর করে কেটে নিয়ে তার সঙ্গে পিনাট বাটার ও পানি ঝরানো দই দিয়ে খেতে পারেন। মৌসুমী সব ধরনের ফল খাওয়ার অভ্যাস করুন। ফলের জুস খেতে পারেন তবে আস্ত ফল খাওয়া খাওয়া বেশি স্বাস্থ্যকর।

নানা ধরনের বাদাম

বাদাম আমাদের শরীরের জন্য উপকারী সে বিষয়ে জানা আছে নিশ্চয়ই। আমন্ড, আখরোট, চিনা বাদাম, পেস্তা, কাজু ইত্যাদি বাদাম খেলে শরীরে নানা উপকার মেলে। সব ধরনের বাদাম একসঙ্গে মিশিয়ে শুকনো খোলায় ভেজে নিতে হবে। এরপর ঠান্ডা করে নিন। এর সঙ্গে মেশান কালো আঙ্গুর, কিশমিশ ইত্যাদি। এবার মিশ্রণটি একটি পাত্রে আটকে রাখুন। বিকেলে ক্ষুধা পেলে একমুঠো খেয়ে নিলেই পেট ভরে যাবে।

খেতে পারেন ভুট্টা কিংবা ছোলা

ছোলা কিংবা ভুট্টা নাস্তা হিসেবে স্বাস্থ্যকর। তবে শুধু ছোলা কিংবা ভুট্টা খেতে ভালো না লাগলে অল্প মরিচ, লবণ, ধনেপাতা, লেবুর রস দিয়ে মেখে খাবেন। তখন কিন্তু স্বাদ দুর্দান্ত হবে। এর সঙ্গে চাইলে সামান্য মুড়ি মিশিয়ে খেতে পারেন। অল্পতেই পেট ভরানোর এমন স্বাস্থ্যকর উপায় আর পাবেন না।

ডিম ও মুরগির মাংস

সামান্য অলিভ অয়েলে একটু রসুন, চিলি ফ্লেক্স দিয়ে আগে থেকে সেদ্ধ করে রাখা মুরগির মাংস হালকা ভেজে নিন। বিকেলে এই নাস্তা খেলে তা অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখবে। খাবারেই অতিরিক্ত লবণের ব্যবহার এড়িয়ে চলবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *