ঘুমের আগে যে কাজগুলো করবেন

নিজের যত্ন নিতে ইচ্ছে হয় না- একথা সত্যি নয়। তবে ইচ্ছে থাকার পরেও যত্ন নেয়ার মতো সময় মেলে না বেশিরভাগেরই। ব্যস্ত দিনের শেষে যখন আয়নায় নিজেকে দেখা সৌভাগ্য হয়, ততক্ষণে হয়তো ঘুম এসে ভর করেছে চোখে। পরে যত্ন নেয়া যাবে- এমনটা ভেবে ঘুমের দিকেই মনোযোগী হই আমরা। এদিকে যত্নের অভাবে আমাদের ত্বকের নানা জায়গায় সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে।

একটু সচেতন হলেই

এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। যতই ব্যস্ততা থাকুক না কেন, ঘুমের আগে অন্তত মিনিট পনের সময় নিজের জন্য রাখুন। শুধু মুখের যত্ন নিলেই চলবে না। সেইসঙ্গে হাত-পা, চুল, ঠোঁট, নখেরও যত্নেও মনোযোগী হতে হবে। দিনের এই সামান্য সময় ব্যয় করলেই আপনিও থাকবেন সজীব, ঝলমলে। চলুন জেনে নেয়া যাক, রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে কোন কাজগুলো করলে ত্বক সুন্দর থাকবে-

পায়ের যত্নে স্ক্রাব

বিছানায় যাওয়ার আগে পা ভালো করে ধুয়ে নিন। এরপর ভালো কোনো লোশন মাখুন। এছাড়াও পায়ের নিয়মিত যত্ন করতে হবে। পা সাবান দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। এরপর ২ টেবিল চামচ কুসুম গরম অলিভ অয়েল ও এক চা চামচ লবণের মিশ্রণ তৈরি করুন। সেই মিশ্রণ পায়ে ভালো করে মাসাজ করে নিন। ম্যাসাজ শেষে পা পরিষ্কার পানিতে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে অন্তত একদিন এটি ব্যবহার করুন। নিয়মিত এরকম করলে মৃতকোষ ঝরে যাবে, রক্ত চলাচল ভালো হবে এবং গোড়ালি নরম হবে। পায়ের যত্নে ব্যবহার করতে পারেন মুখে ব্যবহার করার স্ক্রাবও। এরপর ভালোভাবে ধুয়ে লোশন মেখে ঘুমাতে যান।

হাত-পায়ে ম্যাসাজ

আমাদের পা সারাদিনে তেমন বিশ্রাম পায় না। পুরো শরীরের ভরটা কিন্তু পা’কেই বহন করতে হয়! তাই দিনশেষে পা দুটোকে পর্যাপ্ত বিশ্রাম দিতে হবে। পা যাতে আরাম পায়, সেদিকে খেয়াল রাখুন। পাশাপাশি যত্ন নিতে হবে হাতেরও। হাতে-পায়ে হালকা ম্যাসাজ করে নিন। বেশ জোরে ম্যাসাজ করবেন না। তাতে আরামের বদলে ব্যথা দেখা দিতে পারে।

রাতে চুলের যত্ন

চুলের প্রতিও হতে হবে যত্নশীল। আপনার চুল যদি বড় হয় তবে ঘুমাতে যাওয়ার আগে বেনি করে নিতে পারেন। তাতে বালিশের সঙ্গে চুল ঘষা খাবে না। আর চুল ছোট হলে খোলা রেখেই শুতে পারবেন। তাতে তেমন কোনো সমস্যা হবে না। ঘুমের আগে অল্প তেল নিয়ে মাথায় ম্যাসাজ করলে ঘুম ভালো হয়।

নখের যত্ন নিন

অনেকের নখ একটুতেই ভেঙে যাওয়ার সমস্যা থাকে। আপনারও যদি নখ ভেঙে কিংবা ফেটে যাওয়ার সমস্যা থাকে তবে ঘুমাতে যাওয়ার আগে অল্প অলিভ অয়েল নিয়ে ম্যাসাজ করে নিন। এতে নখ প্রয়োজনীয় আর্দ্রতা পাবে।

গোলাপি ঠোঁট পেতে

নরম ও গোলাপি ঠোঁট পেতে প্রতি রাতে ঘুমের আগে ভ্যাসলিনের সঙ্গে অল্প লবণ মিশিয়ে ঠোঁটে ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন। এরপর পরিষ্কার পানিতে ধুয়ে নিতে হবে। নিয়মিত এমনটা করলে ঠোঁটের মৃত কোষ ঝরে যাবে। ঠোঁট গোলাপি ও নরম হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *