প্রেমের আগে যেসব বিষয়ে খেয়াল করবেন

ভালোবাসা কখন হবে তার দিনক্ষণ আগে থেকে ঠিক করে রাখা সম্ভব নয়। কারণ ভালোবাসা যেমন অল্প পরিচয়ে হতে পারে, তেমনই হতে পারে দীর্ঘদিন চেনাজানার পর। ভিন্ন একজন মানুষকে নিজের করে নেয়া; নিজের ভাবনা, স্বপ্ন তার সঙ্গে ভাগ করে নেয়ার অনুভূতি অন্যরকম। আর এই অনুভূতির নাম প্রেম। এমন সুন্দর সম্পর্কে জড়াতে মানুষ ‍উন্মুখ হয়ে থাকে। কিন্তু প্রেমের সম্পর্কে জড়াতে চাইলে তিনটি বিষয়ে খেয়াল রাখা জরুরি। নয়তো পরবর্তীতে ভালোবেসে দুঃখ পাওয়ার ভয় বেশি থাকে।

নিজেকে ভালোবাসুন

সবার আগে নিজেকে ভালোবাসতে শিখুন। কারণ নিজেকে ভালোবাসা জরুরি। আপনি যখন নিজেকে ভালোবাসতে শিখবেন, তখন অন্যকে ভালোবাসাও সহজ হবে। আর নিজেকে নিজে গুরুত্ব না দিলে অন্যরাও গুরুত্বহীন ভাবতে শুরু করবে। তাই নিজেকে গুরুত্ব দিন। কোনো সম্পর্কে না থাকার মানে আপনি অযোগ্য নন। এমন হতে পারে, আপনি মনের মতো সঙ্গী খুঁজে পাননি।

ভুল থেকে শিক্ষা নিন

প্রেমের সম্পর্ক ভেঙে গেলে নিজেকে প্রতারিত ভাবতে থাকেন অনেকে। অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায় আত্মবিশ্বাস। তখন তারা নতুন সম্পর্কে জড়াতে ভয় পান। বারবার মন ভাঙার বেদনা তারা নিতে চান না। কিন্তু একবার প্রতারিত হওয়ার মানে এই নয় যে, আপনি বারবার এমন প্রতারিত হবেন। বরং অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে সতর্ক হোন। যদি মনে হয় পরবর্তী মানুষটি আপনার ভালোবাসার মানুষ তবেই সম্পর্কে জড়ান।

নিজেকে আমূল পাল্টে ফেলবেন না

নিজেকে বদলে ফেলা ভালো যদি তা ইতিবাচক হয়। কিন্তু অনেকে আছেন যারা ভালোবাসার মানুষটিকে পাওয়ার জন্য তার পছন্দমতো নিজেকে বদলে ফেলে। এটি মোটেই ঠিক নয়। একজন মানুষ কখনোই আরেকজন মানুষের শতভাগ মনের মতো হতে পারে না। যে আপনাকে ভালোবাসে, সে আপনার সবটুকু মিলিয়েই আপনাকে ভালোবাসবে। ভালোবাসার দোহাই দিয়ে কেউ আপনাকে তার হাতের পুতুল করে ফেলতে চাইলে রাজি হবেন না। যদি তা মেনে নেন তবে ভালোবাসার মানুষটিকে পেলেও হারিয়ে ফেলবেন নিজেকে।

চোখ-কান খোলা রাখুন

সবাই যে ভালোবাসতে আসে, তা কিন্তু নয়। বরং প্রেমের অভিনয় করে স্বার্থ আদায় করতেও আসে কেউ কেউ। এমন মানুষ থেকে দূরে থাকুন। একাকীত্ব যতই দুঃসহ মনে হোক, ভুল মানুষের হাতে ফুল দেবেন না ভুলেও। বরং জীবনসঙ্গী বাছাইয়ের মতো একটি প্রক্রিয়া একটু বুঝেশুনে করাই ভালো। তাই প্রথমে তাকে বোঝার চেষ্টা করুন। তার পছন্দ-অপছন্দ সম্পর্কে জানুন। মিলিয়ে দেখুন তা আপনার সঙ্গে কতটা মেলে। সবকিছু মিলিয়ে সিদ্ধান্ত নিন। ভুল সম্পর্কে জড়িয়ে শেষে মাসুল না গুনে কিছুটা সময় নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *