সকালে খালি পেটে পানি খেলে কী হয়

একটু খেয়াল করলে দেখবেন, স্বাস্থ্যকর অভ্যাস গড়ার প্রসঙ্গ এলেই সবার আগে আসে পানি পানের কথা। কারণ পর্যাপ্ত পানি পান ছাড়া সুস্থ থাকা অসম্ভব। আমাদের শরীরের দুই তৃতীয়াংশই হলো পানি। আর তাই পানির ঘাটতি দেখা দিলে শরীরের ভেতরের কাজ ব্যহত হয়। ফলে দেখা দেয় নানা সমস্যা। তাই একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষের প্রতিদিন তিন-চার লিটার পানি পান করা প্রয়োজন।

সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পানি পান করার অভ্যাস আছে অনেকের। কেউ কেউ পানি হালকা গরম করে নিয়ে তাতে মধু কিংবা লেবুর রস মিশিয়ে পান করেন। আমাদের শরীরের জন্য এটি ভালো বলে মনে করা হয়। সত্যিই কি তাই? চলুন তবে জেনে নেয়া যাক।

অতিরিক্ত খাবার খাওয়ার প্রবণতা কমে

সকালে উঠেই খালি পেটে যদি আপনি একগ্লাস পানি পান করে নেন তবে কিছু সময়ের জন্য তা আপনাকে পেট ভরিয়ে রাখবে। এতে একসঙ্গে অনেক খাবার খাওয়ার প্রবণতা কমবে। তাই সকালে খালি পেটে পানি পান করলে নাস্তায় খাবার একটু কমই খাওয়া হবে। আর কম খাবার খেলে শরীরে কম ক্যালোরি প্রবেশ করবে। ফলে কমবে ওজন।

শরীরের আর্দ্রতা ধরে রাখতে

ঘুমের সময়টাতে আমাদের শরীর বিশ্রাম পায়। তবে এসময় আমাদের শরীরে কোনোরকম পানি প্রবেশ করে না। ঘুমের সময়টা স্বাভাবিকভাবেই ছয়-সাত ঘণ্টা হয়। ফলে পানি পানে পড়ে দীর্ঘ বিরতি। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর তাই শরীরে পানির পরিমাণ থাকে বেশ কম। শরীরের স্বাভাবিক আর্দ্রতা ধরে রাখতে তাই ঘুম থেকে উঠেই একগ্লাস পানি পান করা উচিত।

কিডনি ভালো রাখার জন্য

আমাদের সুস্থ রাখতে কিডনির কাজ বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এটি শরীরের বিষাক্ত টক্সিন বের করার কাজ করে। তাই কিডনির কাজ চালিয়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজন পড়ে পানির। কিডনি ভালো রাখতে প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান করা প্রয়োজন। আর কিডনি ভালো থাকলে ভালো থাকবে আমাদের শরীরও। আর তার শুরুটা হোক সকালেই।

খালি পেটে পানি পানের প্রয়োজনীয়তা কতটুকু?

ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পানি পানের প্রয়োজনীয়তা এখনও প্রমাণিত নয়। তবে আপনি যদি খালি পেটে পানি পানের অভ্যাস করেন তাতে ক্ষতির কিছু নেই। তাই একে ভালো অভ্যাস হিসেবেই ধরে নেয়া যেতে পারে। সকালে উঠে খালি পেটে একগ্লাস পানি পান করে নিন। আর সারাদিনে পর্যাপ্ত পানি পান করুন। এতে শরীর সুস্থ থাকবে, সারাদিন সতেজ অনুভব করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *