যে খাবারগুলো পেটের মেদ কমায়

পেটের মেদ এক অস্বস্তিদায়ক সমস্যার নাম। এটি সৌন্দর্য তো নষ্ট করেই, সেইসঙ্গে ডেকে আনে অনেক অসুখও। খাবার খাওয়ার ক্ষেত্রে সচেতন না থাকা, পরিশ্রম কম করা, শরীরচর্চা না করা, অনিয়মিত ঘুম ইত্যাদি কারণে পেটের মেদ বেড়ে যেতে পারে। মেদ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে ওজনও। আগেভাগে সচেতন না হলে এই সমস্যা থেকে বের হওয়া মুশকিল।

মেদ কত ধরনের হয়?

পেটে যে মেদ জমা হয় তা সাধারণত দুই ধরনের হতে পারে। এক ধরনের মেদ থাকে যা তলপেটের অংশে শক্ত হয়ে জমে। এই ধরনের মেদকে বালজিং বেলি বলা হয়। অন্য ধরনের মেদ হলো, পুরো পেটেই মেদ জমে ভুঁড়ির আকৃতি ধারণ করে। এই ধরনের মেদকে ব্লোটেড বেলি বলে। ব্লোটেড বেলি কমানো তুলনামূলক সহজ।
চলুন জেনে নেয়া যাক মেদ দূর করার ঘরোয়া উপায়-

পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে

প্রতিদিন পর্যাপ্ত পানি পান নিশ্চিত করতে হবে। আপনি যখন পানি পান করবেন তখন পাচনতন্ত্র আগে থেকে জমে থাকা পানি অপসরণের কাজ শুরু করে দেবে। ফলে হজম হবে তাড়াতাড়ি। শরীরে পানির ঘাটতি না থাকলে তখন শরীর পানি জমিয়ে রাখে না। তাই সুস্থ থাকতে এবং মেদ থেকে বাঁচতে নিয়মিত পানি পান করুন। তবে কোমল পানীয় বা কফি নয়, বিশুদ্ধ পানি পান করার চেষ্টা করুন।

মেদ দূরে রাখবে কলা

পেটের মেদ দূরে রাখার আরেকটি উপায় হলো কলা খাওয়া। কলায় আছে প্রচুর পটাশিয়াম, যা আমাদের শরীরের পানি ধারণ করার ক্ষমতাকে নিয়ন্ত্রণ করে। পাচনতন্ত্রে থাকা সোডিয়ামের মাত্রাও নিয়ন্ত্রণ করে এই উপকারী ফল।

প্রোটিন রাখুন সকালের খাবারে

পেটে মেদ জমতে থাকলে সকালের খাবারে প্রয়োজনীয় প্রোটিন রাখুন। সেইসঙ্গে রাখুন ফাইবারযুক্ত খাবারও। এতে পাচনপ্রক্রিয়া সহজ হবে। এছাড়া প্রতিদিন রাতের খাবার আগেভাগে খাওয়ার চেষ্টা করুন। খাওয়ার পরপরই ঘুমাতে যাবেন না। কিছুক্ষণ হাঁটাহাঁটি করুন।

গ্রিন টি পান করুন

একটি উপকারী পানীয় হলো গ্রিন টি। এই পানীয় আমাদের সতেজ রাখতে সাহায্য করে। পাশাপাশি ওজন কমানোর ক্ষেত্রেও উপকারী হলো গ্রিন টি। এতে আছে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা বাড়তি চর্বি ঝরাতে সাহায্য করে। তাই নিয়মিত গ্রিন টি পান করার অভ্যাস করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *