গুগলের সাবেক প্রকৌশলী অ্যান্থনি লিভানডস্কিকে ক্ষমা করেছেন ট্রাম্প

সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগলের সাবেক প্রকৌশলী অ্যান্থনি লিভানডস্কিকে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করেছেন। এর আগে অ্যান্থনি লিভানডস্কিকে স্বয়ংক্রিয় লরি কোম্পনি ওটোর চালকবিহীন গাড়ি তৈরির ব্যাপারে তথ্য চুরির অভিযোগে ১৮ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছিলো।

২০২০ সালের আগস্টে তাকে কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়। তবে সেই সময় বিচারক তার সম্পর্কে প্রশংসা করে বলেছিলেন, লিভানডস্কি একজন মেধাবী ও অসামান্য প্রতিভাবান প্রকৌশলী। তার মতো প্রকৌশলীকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রয়োজন রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, লিভানডস্কি অনেক বড় ত্যাগ স্বীকার করেছেন এবং তার মেধাকে জনস্বার্থে বিলিয়ে দেবেন।

বিবিসি ও এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, কারাদণ্ডের আদেশ দেয়া হলেও লিভানডস্কি কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য কারাগারে যাননি। লিভানডস্কি ২০১৭ সালে অ্যাপভিত্তিক রাইডশেয়ারিং প্রতিষ্ঠান উবারের চালকবিহীন গাড়ি প্রকল্পেও নিযুক্ত হয়েছিলেন। ২০০৯ সালে গুগলের সবচেয়ে উচ্চাভিলাষী চালকবিহীন গাড়ি প্রকল্প চাউফিউরের প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য হিসেবে কাজ করেন। কয়েক বছর পরে লিভানডস্কি গুগল ছেড়ে দিয়ে নিজেই চালকবিহীন গাড়ির প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করেন।

কিন্তু একই কারণে তিনি বরখাস্ত হয়েছিলেন উবার থেকে। যদিও সেই অভিযোগ তিনি অস্বীকার করেছেন।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে গুগলের পেটেন্ট কোম্পানি অ্যালফাবেট উবারের বিরুদ্ধে তথ্য চুরির অভিযোগ দায়ের করে এবং সেই অভিযোগে বিচার চলে ২০১৮ সাল পর্যন্ত।

গুগলের অধীনে কাজ করার সময় থেকে তিনি রাইডশেয়ারিং জায়ান্ট উবারের সঙ্গে ব্যবসায় শুরু করেন। তিনি বলেন, ‘গুগল ছেড়ে দেয়ার সময় আমি চাউফিউর প্রকল্পের হাজারো ফাইল ডাউনলোড করি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *