ঘুরে আসুন নেপাল : সেরা ৫টি জায়গা

এভারেস্ট কন্যা নেপাল বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশ। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর দেশটিতে অনেক দর্শনীয় স্থান রয়েছে। পোখারা, লুম্বিনি, ভক্তপুর, নাগরকোটসহ নেপালের আরও অনেক অঞ্চলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। নেপালের সেরা ৫টি জায়গা সম্পর্কে আসুন জেনে নেয়া যাক-

পোখারা

পোখারাকে বলা হয়ে থাকে ‘সকল দর্শনীয় স্থানের রাজধানী’। এটি নেপালের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। এই কারণে শহরটি পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয়। শহরটিতে বিভিন্ন জনপ্রিয় স্থান রয়েছে যা দর্শনার্থীদের মুগ্ধ করে। বিশেষ করে যারা অ্যাডভেঞ্চার করতে ভালবাসেন তাদের জন্য এটি একটি আদর্শ স্থান।

কাঠমান্ডু

কাঠমান্ডু নেপালের রাজধানী এবং সবচেয়ে বড় শহর। শহরটিতে দেড় মিলিয়ন লোকের বসবাস রয়েছে। এখানে রয়েছে মন্দির, মঠ ও আশ্রম। পর্যটকরা এখানে ঘুরে বেশ আনন্দ পান। শহরটি সারা বিশ্বের পর্যটকদের কাছে জনপ্রিয়।

লুম্বিনি

হিমালয়ের অদূরে অবস্থিত এই শহর ইউনেস্কো ওয়ার্ল্ড হেরিটেজের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত। শহরটি সারা বিশ্বেই জনপ্রিয়। এখানে উল্লেখযোগ্য দর্শনীয় স্থান হিসেবে রয়েছে মায়া দেবীর মন্দির। এই শহরেই জন্ম নিয়েছেন গৌতম বুদ্ধ। তাই বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের কাছে এই শহর অত্যন্ত সম্মানের।

ভক্তপুর

ভক্তপুর মূলত কাঠমান্ডু উপত্যকার তিনটি শহরের সমন্বিত রূপ। শহরটি রাজধানী কাঠমান্ডু থেকে মাত্র ১২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। ভক্তপুর নেপালি সংস্কৃতির প্রাণকেন্দ্র। এছাড়া ভারত ও নেপালের মধ্যে শহরটি বানিজ্য পথ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। পর্যটকদের কাছে এই শহর আকর্ষণীয় ও জনপ্রিয়।

নাগরকোট

কাঠমান্ডু থেকে ২৮ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত নাগরকোট শহর। হিমালয় থেকে নেপালের বিভিন্ন স্থানের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। কাঠমান্ডু বিমানবন্দর থেকে নাগরকোটের দূরত্ব ১৬ কিলোমিটার। মাত্র দেড় ঘণ্টায় নাগরকোটে পৌঁছানো সম্ভব।

এই ছিল নেপালের সেরা ৫টি জায়গা। সময় ও সুযোগ পেলে সপরিবারে আপনিও ঘুরে আসতে পারেন নেপালের এই জনপ্রিয় ৫টি স্থান থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *