‘চলতি মাসেই হাওরে কানেক্টিভিটি দেবে টেলিটক’


সব ঠিকঠাক থাকলে চলতি ডিসেম্বর মাসেই টেলিটক হাওরাঞ্চলে কানেক্টিভিটি দিতে পারবে বলে জানিয়েছেন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. সাহাব উদ্দিন।

সোমবার (৭ ডিসেম্বর) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে টেলিটকের ভেরিফায়েড পেজে ‘গ্রাহকদের অভিজ্ঞতা’ শীর্ষক এক লাইভে যুক্ত হয়ে তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সাহাব উদ্দিন বলেন, ‘টেলিকমিউনিকেশনখাতে রবি অথবা বাংলালিংকের যে বিনিয়োগ, সে তুলনায় আমাদের তা খুবই কম। আমাদের বিনিয়োগ মাত্র সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা। আমরা চেষ্টা করছি শক্তিশালী কানেক্টিভিটি গড়ে তোলার।’ সব সমস্যার সমাধান করে আগামী ১/২ বছরের মধ্যে গ্রামপর্যায়ে চতুর্থ প্রজন্মের (ফোরজি) নেটওয়ার্ক পৌঁছাতে পারবো বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আগামীতে দ্রুতগতির ডাটা সরবরাহের প্রত্যাশা জানিয়ে টেলিটক এমডি বলেন, ফোরজি আমরা প্রত্যেকটি জেলা শহরে পৌঁছাতে পেরেছি, থ্রিজি নেটওয়ার্ক প্রত্যেকটি উপজেলা পর্যন্ত পৌঁছাতে পেরেছি এবং টুজি আমাদের গ্রামপর্যায়ে আছে। আপনারা জানেন, আধুনিক প্রযুক্তির এ জগতে টুজি অথবা থ্রিজি নেটওয়ার্ক থাকবে না। আমরা এখন সরাসরি ফোরজির দিকে ঝুঁকছি। যার মাধ্যমে আমরা আগামীতে দ্রুগগতির ডাটা সরবরাহ নিশ্চিত করতে পারবো।

তিনি বলেন, টেলিটক এমন একটি অপারেটর যেখানে অন্য অপারেটর এখন পর্যন্ত কানেক্টিভিটি দিতে পারেনি, সেখানে টেলিটক পৌঁছেছে। টেলিটক একমাত্র প্রতিষ্ঠান সুন্দরবনে যার কানেক্টিভিটি আছে। আমরা খুব দ্রুত হাওর-বাওড় এলাকায় টেলিটকের কানেক্টিভিটি পৌঁছানোর চেষ্টা করছি। আশা করি এই মাসে আমরা টেলিটকের ওইসব এলাকায় কার্যক্রম চালু করতে পারবো।

এসময় তিনি লাইভে গ্রাহকদের করা বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন এবং প্রতিমাসে সরাসরি গ্রাহকদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার এই অনুষ্ঠানটি চালিয়ে নিয়ে যাওয়া আগ্রহ প্রকাশ করেন।