প্লে-স্টোর থেকে পার্লার অ্যাপ সরালো গুগল

গুগল প্লে-স্টোর থেকে শুক্রবার সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট পার্লার সরানো হয়েছে। এর আগে টুইটার থেকে অ্যাপটি সরিয়ে দেয়া হয়। গুগল বলেছে, সহিংসতায় উসকানিমূলক পোস্ট না সরানোর কারণে গুগল প্লে-স্টোর থেকে অ্যাপটি সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে অ্যাপটি সরিয়ে দেয়ার পর শনিবার অ্যাপলও পার্লার অ্যাপকে সতর্ক করে বলেছে, তাদের অ্যাপ স্টোর থেকেও পার্লার অ্যাপ সরিয়ে দেয়া হবে।

পার্লার ‘ফ্রিস্পিচ’ অ্যাপের প্রধান নির্বাহী জন মাটজে বলেন, ‘যেসব রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান বাকস্বাধীনতাকে দমন করতে চায় আমরা তাদের কাছে পরাজয় স্বীকার করিনি।’

২০১৮ সালে অ্যাপটির যাত্রা শুরু হওয়ার পর থেকে অ্যাপটি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ডানপন্থী রক্ষণশীল দলকে সমর্থন করে আসছিলো। সেই সময় থেকে অ্যাপটির বিরুদ্ধে টুইটার ও ফেসবুক বারবার অভিযোগ করে আসছিলো যে তাদের কনটেন্টে ডানপন্থী রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।

বিবিসি, ভয়েস অব আমেরিকা ও দ্য গার্ডিয়ানের খবরে উল্লেখ করা হয়, অ্যাপটি যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনের পর যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড করা হয়। যদিও অ্যাপল ও গুগল বলে আসছে অ্যাপটি কনটেন্ট মডারেশনের জন্য যা করা প্রয়োজন তাতে ব্যর্থ হয়েছে।

বিবিসি মনিটরিং বিভাগের শায়ান শার্দারিজাদেহ বলেন, কয়েক মাস ধরে পার্লার অ্যাপ যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফরমে রূপ নিয়েছে।

গুগল ও অ্যাপল বলেছে, সহিংসতায় উসকানিমূলক কোনো কনটেন্ট তাদের প্ল্যাটফরমে প্রচার করা হলে তার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এক বিবৃতিতে গুগল বলেছে, পার্লার অ্যাপকে প্লে-স্টোর থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। শনিবার অ্যাপলও পার্লার অ্যাপকে সতর্ক করে দিয়েছে বলে খবর প্রকাশ করেছে বাজফিড নিউজ। তারা বলেছে, ক্যাপিটাল ভবনে সংঘর্ষের সঙ্গে পার্লার অ্যাপের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।

পার্লারের প্রধান নির্বাহী মাটজে বলেন, কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার মতো কোনো অপরাধ করেনি পার্লার।

তবে অ্যাপল বলেছে, পার্লার অ্যাপ যথাযথভাবে নেতিবাচক কনটেন্ট মডারেশন করতে ব্যর্থ হয়েছে। তারা আরও বলেছে, ‘অ্যাপটির ক্ষতিকর কনটেন্ট আমরা সহ্য করবো না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *