জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় প্রধান বাধা প্রযুক্তি


পুরোনো টিভি থেকে অপেক্ষাকৃত কম কার্বন নির্গত হয়ে থাকে। যুক্তরাজ্যের রয়্যাল সোসাইটির বিজ্ঞানীরা তাদের নতুন গবেষণা প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছেন।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, ফোনে এইচডি ভিডিও দেখলে তাতে কার্বন নির্গত হওয়ার মাত্রা ও সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। যদি এমন ভিডিও ছোট স্ক্রিনে দেখা হয় তাহলে দর্শকের অজান্তেই তার শরীরে ভয়ংকর দাহ্যপদার্থ প্রবেশ করে।

গবেষণায় বিজ্ঞানীরা এ বিষয়ক প্ল্যাটফরম ও রেগুলেটরগুলোকে সীমিত পরিসরে রেজল্যুশন এবং এসডি ফরমেট রাখার ব্যাপারে অনুরোধ করেন। এ সময় বলা হয়, বৈশ্বিক কার্বন নিঃসরণে ডিজিটাল প্রযুক্তির ভূমিকা পাঁচ দশমিক ৯ শতাংশের মধ্যে এক দশমিক চার শতাংশ রয়েছে।

বিজ্ঞানীরা জানান, শক্তির বড়সড় আকারের এমন অপচয় রোধের আরও একটি উপায় হলো ভিডিও না দেখে কেবল অডিও শোনা। গবেষণায় মোবাইল ফোন অন্তত দুই বছর পর পর পাল্টাতে অনুরোধ করা হয়।

ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটির প্রফেসর অ্যান্ডি হপার জানিয়েছেন, কার্বন নির্গত হওয়ার অনেকগুলো কারণ রয়েছে। কিন্তু ডিজিটাল প্রযুক্তি এসব কারণের কেন্দ্রে অবস্থান করে।

ইস্ট অ্যাঞ্জেলিয়া ইউনিভার্সিটির প্রফেসর কোরিন লে কুওয়ের মন্তব্য করেছেন, বাস্তবতা হলো কার্বন ডাই অক্সাইড নিঃসরণে ডিজিটাল প্রযুক্তির ভূমিকা গৌণ কিন্তু এর ফলে সব জায়গায় কেবল কার্বন নিঃসরণ হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় মানুষের মধ্যে সচেতনতা তৈরির কাজ করছি।’

তিনি মজা করে বলেন, ‘দৈনন্দিন জীবনে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে আমরা আমাদের ঘরবাড়িতে আগুন ঢালছি। আমরা হয়তো একটি সীমিত গণ্ডির মধ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার করছি। কিন্তু আসলে আমরা প্রতিদিন যেন নিজেদের ক্ষতি করে চলেছি।’