২০২১ সালে অ্যাপলে যেসব পরিবর্তন হতে পারে

কয়েক বছর ধরে টেক জায়ান্ট অ্যাপলের সার্ভিসে বড় ধরনের পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে। যেমন- অ্যাপল টিভি প্লাসের মূল্য প্রতি মাসে ৫ ডলার, আইফোন ১২-তে ফাইভজি প্রযুক্তি যুক্ত হওয়া এবং আইফোনের মাইক্রোফোনের মূল্য ১৪৯ ডলার।

এসব পরিবর্তন দেখে অনুমান করা যাচ্ছে, ২০২১ সালে আরও পরিবর্তন নিয়ে আসছে আইফোন।

টেক জায়ান্ট অ্যাপলের নিজস্ব প্রযুক্তি ম্যাক কম্পিউটারের সঙ্গে আরও অনেক ডিভাইস যুক্ত হতে পারে।

অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী টিম কুক বলেন, ‘মানুষের জীবনকে অর্থপূর্ণভাবে পরিচালিত করাই আমাদের উদ্দেশ্য।’

২০২১ সালে টেক জায়ান্ট অ্যাপল তাদের নিজস্ব প্রযুক্তি ম্যাক কম্পিউটারে পরিবর্তনের এই গতি আরও বাড়াবে। এ ব্যাপারে অ্যাপল বলছে, ম্যাক কম্পিউটারে তারা নতুন ডিভাইস আনবে। যার মিল রয়েছে আইফোন ও আইপ্যাডের সঙ্গে।

ধারণা করা হচ্ছে, ২০২১ সালে ম্যাক কম্পিউটার টেক জায়ান্ট অ্যাপলের মালিকানাধীন আইফোন ও আইপ্যাডের প্রযুক্তিতে চলবে।

এ ব্যাপারে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ বব ও ডননেল বলেন, ‘একজন ম্যাক কম্পিউটার ব্যবহারকারী হিসেবে আমি দ্বিধার মধ্যে রয়েছি যে, আমি ম্যাকের ডিভাইস ব্যবহার করবো নাকি আইফোনের ডিভাইস ব্যবহার করবো। এটা ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলছি।’

বিশ্লেষকরাও টেক জায়ান্ট অ্যাপলের আকস্মিক পরিবর্তন নিয়ে কথা বলেছেন। তারা বলেন, এটি অ্যাপলের আকস্মিক পরিবর্তন।

গত ২৩ অক্টোবর প্রকাশিত আইফোন ১২ ও আইফোন ১২ প্রো ছিল বাজারের সেরা বিক্রিত ফাইভজি প্রযুক্তির ফোন। ২০২০ সালে আইফোনের এই সফলতার ধারা অব্যাহত রাখবে অ্যাপল।

এছাড়া অ্যাপলের সবচেয়ে বড় পরিবর্তন হলো তাদের নিজস্ব ব্যবসায়ে ক্রেডিট কার্ড আনছে। এটি আইফোন, আইপ্যাড, ম্যাক কিংবা অ্যাপলের অন্যান্য পণ্য ক্রয়ের পর মূল্য পরিশোধের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *