মার্কিন নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে শাওমির মামলা

চীনের সামরিক বাহিনীর সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে শাওমির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা এবং বাণিজ্য বিভাগের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে চীনা এই স্মার্টফোন কোম্পানি। শুক্রবার ওয়াশিংটনের একটি জেলা আদালতে এই মামলা দায়ের করেছে শাওমি।

মার্কিন প্রতিরক্ষা ও বাণিজ্য বিভাগ বলছে, শাওমি এবং অন্য ৮ চীনা কোম্পানির সঙ্গে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির সম্পর্ক রয়েছে। মামলার অভিযোগে বাইডেন প্রশাসনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লয়েড অস্টিন ও বাণিজ্য মন্ত্রী জানেট ইয়েলেনকে উল্লেখ করে শাওমি বলছে, তাদের ওপর যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে; তা বেআইনি এবং অসাংবিধানিক। একই সঙ্গে কোম্পানিটি পিপলস লিবারেশন আর্মির নিয়ন্ত্রণে নেই বলেও জানানো হয়েছে।

২০২০ সালের ১৫ মার্চ শাওমির ওপর যুক্তরাষ্ট্র বিনিয়োগ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। এই বিষয়ে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়, স্মার্টফোন কোম্পানিটির জন্য এটি অপূরণীয় ক্ষতির কারণ।

স্মার্টফোন কোম্পানি শাওমি বলেছে, লিন বিন ও লি জুন পরিচালিত প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চীনা সেনাবাহিনীর কোনো সম্পর্ক নেই। এছাড়া প্রতিষ্ঠানটির নির্দিষ্ট সংখ্যক শেয়ারহোল্ডারদের সঙ্গেও চীনা সেনাবাহিনীর সম্পর্ক নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে স্মার্টফোন কোম্পানিটির কৌশলগত সম্পর্ক শীতল অবস্থায় রয়েছে। কারণ প্রতিযোগিতামূলক বাজার থেকে মূলধন সংগ্রহ করতে সচেষ্ট হয়েছে কোম্পানিটি। মার্কিন প্রতিরক্ষা ও বাণিজ্য বিভাগ বলছে, চীনা সেনাবাহিনীর সঙ্গে শাওমির সম্পর্ক অনেক গভীর। স্মার্টফোন কোম্পানিটির সঙ্গে চীনা সেনাবাহিনীর সম্পর্ক থাকার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে সুনাম হারাতে পারে কোম্পানিটি।

এই বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা ও বাণিজ্য বিভাগ তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *