ঘুরে আসুন অস্ট্রিয়া: সেরা ৮ জায়গা

এক সময় ইউরোপীয় সাম্রাজ্যের শীর্ষে থাকা দেশ অস্ট্রিয়া আজকে ইউরোপের অন্যতম পর্যটনসমৃদ্ধ দেশে রূপান্তর হয়েছে। ধ্রুপদ সংগীত, স্থাপত্য, চারুকলায় অগ্রণী এই দেশ নিয়ে শিল্পসচেতন পর্যটকের আগ্রহের কমতি নেই। আজ আপনাদের জানাবো অস্ট্রিয়ার সেরা ৮ জায়গা সম্পর্কে। আসুন জেনে নেয়া হোক-

১. বাদ গ্যাস্টেইন

অস্ট্রিয়ার উঁচু পাহাড় ঘেরা শহর বাদ গ্যাস্টেইন। উঁচু পাহাড় থেকে শহর দেখার জন্য অনেক পর্যটক এখানে ভ্রমণ করে থাকেন। এখানকার স্থাপত্য মনোমুগ্ধকর। এই শহরের সবচেয়ে বড় ভবন গ্রান্ড দে আইইউরোপ হোটেল। এটি ১১ তলার ভবন। এছাড়া বাদ গ্যাস্টেইনে ডজনখানেক রিসোর্ট রয়েছে।

২. ওর্থারসি

ক্যারিন্থিয়ার বড় লেক ওর্থারসি অস্ট্রিয়ার দক্ষিণে অবস্থিত। গ্রীষ্মকালে এখানে পর্যটকদের বেশি দেখা যায়। লেকের পাশে রয়েছে ঘোড়া চালনা ও গলফ খেলার ব্যবস্থা রয়েছে। ক্রীড়ামোদী পর্যটকরা এই জায়গার প্রতি আকৃষ্ট হন।

৩. গ্রাজ

অস্ট্রিয়ার দ্বিতীয় বড় শহর গ্রাজ। মুর নদীর তীরবর্তী শহর এটি। অস্ট্রিয়ার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত শহরটির মানুষ সংগ্রামমুখর। এই শহর রোমান, হাপসবার্গ থেকে শুরু করে হাঙ্গেরিয়ান, অটোমান সুলতান এবং নেপোলিয়নের দ্বারা শাসিত হয়েছে। ইতিহাসের প্রতি গভীর টান রয়েছে যেসব মানুষের তারা এই শহরে আসেন।

৪. জিলেট্রাল আল্পস

ইতালি সীমান্তে শহর জিলেট্রাল আল্পস। পাহাড়-পর্বত ও বৃক্ষরাজিতে ভরপুর এই শহরের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখার জন্য বিশ্বের মানুষ ছুটে আসেন। পুরো ইউরোপ মহাদেশে এমন শহর আর খুঁজে পাওয়া যাবে না। পর্যটকদের কাছে এটি খুব পছন্দের জায়গা।

৫. ওয়াচাউ

অস্ট্রিয়ার ওয়াচাউ উপত্যকা দানিয়ুব নদীর তীরে অবস্থিত। অস্ট্রিয়ার সবচেয়ে ছোট একটি শহর। এখান থেকে ১১৯৩ সালে ডিউক লিওপোল্ড ভি-এর নেতৃত্বে তৃতীয় ক্রুসেড হয়েছিলো। এর পথ সংকীর্ণ। বাইকে ঘোরাঘুরি করে আনন্দ পাওয়া যায়।

৬. ইনসব্রুক

দুই হাজার মিটার প্রশস্ত ইন নদীর তীরে অবস্থিত ইনসব্রুক শহর। পাহাড়ে ঘেরা শহরের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ ভ্রমণ করে থাকেন। এই শহরে রয়েছে অনেক অভিজাত ভবন ও সুশোভিত গীর্জা। বিশেষ করে ব্যারোক সেন্ট জ্যাকোব ক্যাথেড্রাল, রেনেসাঁ যুগের স্থাপত্যে নির্মিত হাপসবার্গ ইমপেরিয়াল প্যালেস এই শহরের প্রতি মানুষের আগ্রহকে জাগিয়ে তোলে।

৭. সলসবার্গ

জার্মান সীমান্তে অবস্থিত সলসবার্গ অস্ট্রিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় শহর। সালজেক নদীর তীরবর্তী শহর এটি। এই শহরে ১৯৬৫ সালে দ্য সাউন্ড অব মিউজিক নামে একটি চলচ্চিত্রের শুটিং হয়েছিলো। এই শহরের প্রতি দর্শনার্থীদের আগ্রহ আরও বাড়িয়ে তোলে ব্যারোক মিরাবেল প্যালেস।

৮. ভিয়েনা

ভিয়েনা শহর অস্ট্রিয়ার অন্যতম বড় একটি শহর হিসেবে পরিচিত। এখানে রয়েছে মিউজিয়াম, অভিজাত ভবন। গথিক ক্যাথেড্রাল নামে একটি গীর্জায় পর্যটকদের বেশি দেখা যায়। শহরটিতে অসংখ্য নাইটক্লাব রয়েছে। এসব নাইটক্লাবে তরুণদের অনেক বেশি দেখা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *